যুদ্ধাপরাধী গোলাম আযমকে অবিলম্বে গ্রেপ্তার করে বিচারের সম্মুখীন করা হোকঃ জর্জিয়ায় দিদারুল আলম গাজী

December 23, 2010, 11:53 AM, Hits: 2215

যুদ্ধাপরাধী গোলাম আযমকে অবিলম্বে গ্রেপ্তার করে বিচারের সম্মুখীন করা হোকঃ জর্জিয়ায় দিদারুল আলম গাজী

alt

মনজিলুর রহমান, আটলাণ্টা থেকে - ‘বর্তমান সরকারের দুর্নীতি, অপশক্তি ও রাজাকার মুক্ত বাংলাদেশ গড়ে তোলার অঙ্গীকার সত্যিই প্রশংসনীয়। চিহ্নিত রাজাকার মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী, মাওলানা দেলাওয়ার হোসেন সাঈদী, আলি আহসান মোহাম্মদ মোজাহিদকে ইতিমধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সম্প্রতি সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরি (সাকা চৌধুরি)কে গ্রেপ্তার করেছে। কিন্তু নাটের গুরু গোলাম আযম এখনও বাইরে কেন ? অবিলম্বে এই কুখ্যাত রাজাকার যুদ্ধাপরাধী গোলাম আযমকে গ্রেপ্তার করে বিচারের সম্মুখীন করা হোক।’ জর্জিয়া আওয়ামী লীগ কর্তৃক বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় কথাগুলো বলেন, জর্জিয়া আওয়ামী লীগের সভাপতি দিদারুল আলম গাজী। গত ১৯ ডিসেম্বর আটলাণ্টায় স্থানীয় একটি হোটেলে তারঁই সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিজয় দিবসের এই অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সাধারন সম্পাদক হুমায়ুন কবির কাওসার।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মিয়া মোতাকেব্বেরুল ইসলাম পিকুল, আহসান ফারুক মানিক, রুমী কবির, মোহাম্মদ আলি হোসেন, আলহাজ্ব ডাঃ মুহম্মদ আলি মানিক, সলিমুল্লাহ সলি, মিণ্টু রহমান প্রমুখ। বক্তারা বলেন, ইতিহাসের পাতায় জাতির শ্রেষ্ঠ অর্জন স্বাধীনতা। ত্রিশ লক্ষ শহীদদের, অগনিত মা-বোনের সম্ভ্রমহানির বিনিময়ে অর্জিত এই স্বাধীনতা সম্মুত রাখতে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে সোনার বাংলা গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন সেই সোনার বংলাকে গড়ে তুলতে হবে।যুদ্ধ অপরাধীদের বিচারের কাজ দ্রুত সম্পন্ন করে জাতিকে কলংকমুক্ত করতে হবে। আর এ কাজটি সম্পন্ন করতে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে অবশ্য আমাদের সহযোগীতা করতে হবে।

বিগত স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদের আত্নার মাগফেরাত কামনায় ও তাঁদের শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা কামনা করে এক মিনিট নিরবতার মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়। এছাড়া দেওয়ান ফরিদ গাজী, লুৎফুল হাই সাচ্চু, মীর শওকত আলি বাদশাসহ আওয়ামী লীগের সদ্যপ্রয়াত কতিপয় নেতৃবৃন্দের এবং সম্প্রতি আটলাণ্টায় মৃত জনৈক আতাউজ্জামানের আত্নার মাফফেরাত কামনা করে বিশেষ মোজানাত করা হয় । মোনাজাতটি পরিচালনা করেন আটলাণ্টার সবার পরিচিত প্রবীণ নেতা আকমল হোসেন। পরিশেষে উপস্থিত সুধীমন্ডলী দিদারুল আলম গাজীর স্বহস্তে রন্ধিত সুস্বাদু তেহারী ও চিকেন বিরিয়াণী উপভোগ করে রন্ধনশৈলীর প্রশংসা করতে করতে যে যার বাড়ি ফেরে।

 
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ