তিনি ময়মনসিংহের স্কুল পিয়ন!

May 26, 2011, 11:47 PM, Hits: 2720

তিনি ময়মনসিংহের স্কুল পিয়ন!

http://www.kalerkantho.com/admin/news_images/533/image_533_157225.jpg

হ-বাংলা নিউজ  : চাকরি করেন ময়মনসিংহ শহরের সরকারি বিদ্যাময়ী বালিকা বিদ্যালয়ের পিয়ন পদে। স্কুলে আসেন মোটরসাইকেলে চেপে। বাসায় ব্যবহার করেন এসি। সম্প্রতি তাঁকে বদলি করা হয়েছিল। কিন্তু বদলি ফেরাতে তিনি রিট করেছেন হাইকোর্টে। ময়মনসিংহ শহরের আলোচিত এ স্কুল পিয়নের নাম রইছ উদ্দিন শ্যামল। তাঁর বিলাসী জীবন, নিজ স্কুলে দাম্ভিক আচরণ আর বদলি নিয়ে প্রতিবাদের ভাষা দেখে শিক্ষক-শিক্ষিকা এমনকি শিক্ষা বিভাগের লোকজনও হতবাক।
সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানায়, ময়মনসিংহ শহরের সরকারি বিদ্যাময়ী বালিকা বিদ্যালয়ে রইছ উদ্দিন শ্যামল ২০০৬-এ পিয়ন পদে যোগ দেন। বেতন সব মিলিয়ে প্রায় আট হাজার টাকা। তাঁর নিজ বাসা ময়মনসিংহ শহরের গোহাইলকান্দি এলাকায়। বাসায় তিনি ব্যবহার করেন এসি। আর চলাচল করেন মোটরসাইকেলে। স্কুলে তাঁর আচরণ দৃষ্টিকটু এবং দম্ভপূর্ণ। সম্প্রতি তাঁকে ময়মনসিংহ থেকে বদলি করা হয় জামালপুর জেলার বকশীগঞ্জে। কিন্তু বদলির আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিট করেন রইছ উদ্দিন শ্যামল। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তিনি বদলি হওয়া জায়গায় যোগদান করেননি।
সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানিয়েছে, সমপ্রতি বিদ্যাময়ী স্কুলের অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন ঘটনায় পিয়ন শ্যামলের বিরুদ্ধে বিতর্কিত ভূমিকা রাখার অভিযোগ রয়েছে। প্রশ্ন রয়েছে চাকরির সঙ্গে অসামঞ্জস্যহীন তাঁর বিলাসী জীবনযাত্রা নিয়ে। সর্বশেষ বদলির আদেশকে চ্যালেঞ্জ করে পিয়ন শ্যামল শহরের সচেতন মহল এবং শিক্ষা বিভাগের লোকজনকে হতবাক করে দিয়েছেন।
এ ব্যাপারে রইছ উদ্দিন শ্যামলের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, তিনি যে বাসায় থাকেন সেটি তাঁর বাবার। পারিবারিকভাবেই তাঁরা সচ্ছল। বাড়িতে এসি থাকার কথাও তিনি অকপটে স্বীকার করেন। বদলির ব্যাপারে তিনি মনে করেন তাঁকে অন্যায়ভাবে বদলি করা হয়েছে।
একই বিষয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা ময়মনসিংহ অঞ্চলের উপপরিচালক সুজন কুমার সরকার বলেন, প্রশাসনিক স্বাভাবিক নিয়মেই তাঁকে বদলি করা হয়েছে।

 
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ