১ জুলাই থেকে মালয়েশিয়ায় অবৈধ শ্রমিক রেজিস্ট্রেশন

June 16, 2011, 7:24 AM, Hits: 1726

১ জুলাই থেকে মালয়েশিয়ায় অবৈধ শ্রমিক রেজিস্ট্রেশন



মিথুন মাহফুজ: আগামী ১ জুলাই থেকে মালয়েশিয়ায় কর্মরত অবৈধ শ্রমিকদের রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে। ৩ লাখেরও বেশি অবৈধ বাংলাদেশি শ্রমিক এর আওতায় আসছে। বৈধকরণ প্রকল্পের ৩ সপ্তাহের এ কর্মসূচির নাম দেয়া হয়েছে ৬-পি। যাতে রয়েছে নিবন্ধন (রেজিস্ট্রেশন), বৈধকরণ (লিগালাইজেশন), সাধারণ ক্ষমা (অ্যামেনস্টি), তদারকি (সুপারভিশন), বাস্তবায়ন (এনফোর্সমেন্ট) ও নিজ দেশে ফেরত পাঠানো (ডিপোর্টেশন) নামে ৬টি ধাপ।

কুয়ালালামপুর থেকে সূত্র জানিয়েছে, আগামী ২২ জুন অনুষ্ঠিতব্য মালয়েশিয়ার মন্ত্রী পরিষদ কমিটির বৈঠকে শ্রমিক বৈধকরণে চূড়ান্ত ঘোষনা আসবে। ওই দিন অবৈধ শ্রমিক বৈধকরণের বিষয়টিও অনুমোদন পাবে। একইসঙ্গে অনুমোদন পাবে যোগ্যতা যাচাইয়ে ঊত্তীর্ণ অর্ধ শতাধিক আউটসোর্সিং কোম্পানি, যাদের সাহায্যে লাখ লাখ শ্রমিকের নিবন্ধন সম্পন্ন করা হবে।

যেভাবে রেজিস্ট্রেশন করা হবে: কুয়ালালামপুর থেকে বাংলাদেশ হাইকমিশনের শ্রম কাউন্সিলর মন্টু কুমার বিশ্বাস গতকাল এ প্রতিবেদককে টেলিফোনে জানান, চলতি প্রকল্পের আওতায় প্রথমে সব অবৈধ শ্রমিকদের বৃদ্ধাঙ্গুলের ছাপ সংগ্রহ করে অভিবাসন বিভাগের ডাটাবেজে রাখা হবে। বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সবার বৃদ্ধাঙ্গুলের ছাপ সংগ্রহ করা হবে চলাফেরা মনিটর করার জন্য। এর দ্বারা মালয়েশিয়া থেকে কোনো অপরাধ কর্মকাণ্ডের অভিযোগে বের করে দেয়া বিদেশি শ্রমিকের পরবর্তীতে ছদ্মনামে আবার ফেরত আসাও ঠেকানো যাবে। পরে তিন মাস সময় পাওয়া যাবে কাগজপত্র জমা দেয়ার জন্য।

রেজিস্ট্রেশনের জন্য এখন কাউকে টাকা পয়সা না দেয়ার অনুরোধ জানিয়ে কাউন্সিলর বলেন, যারা কাজের দায়িত্ব পাবে, সরকার কোন ফি নির্ধারণ করলে টাকা তাদেরকেই দিতে হবে।

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. জাফর আহমেদ খান জানান, গত বছরের ১৮ মে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মালয়েশিয়া সফর কালে দুদেশের সরকার পর্যায়ে আলোচনায় অবৈধদের বৈধ করার বিষয়টি উঠে আসে। বর্তমানে অবৈধ শ্রমিকদের বৈধ করার পাশাপাশি বাংলাদেশি শ্রমিকদের জন্য মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার ফের উš§ুক্ত করার প্রস্ততি চলছে। বাজার উুক্ত হলে প্রথম পর্যায়ে পাঁচ বছরের চুক্তিতে মালয়েশিয়া যাবেন কর্মীরা। কাজের মেয়াদ শেষে আরো পাঁচ বছরের জন্য চুক্তি নবায়নের সুযোগ পেতে পারেন তারা। বাংলাদেশকে সোর্স কান্ট্রি হিসেবে তালিকাভুক্ত করা নিয়ে আলোচনাও অনেক দুর এগিয়েছে।




 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ