ডেইরি খামার করে কোটিপতি শাহীন

January 20, 2016, 8:27 PM, Hits: 2406

ডেইরি খামার করে কোটিপতি শাহীন

হ-বাংলা নিউজ : ডেইরি খামার করার পর মাত্র ১৫ বছরে কোটিপতি হয়েছেন চিরিরবন্দরের শাহীন সরকার। এ খামার থেকে এখন প্রতিমাসে লাভ করছেন ১ লক্ষাধিক টাকা। একইসঙ্গে তিনি তার খামারে অনেকের কর্মসংস্থান করেছেন, বাড়িয়েছেন খামারের কাঠামো।

সফল খামারি শাহীন সরকার চিরিরবন্দর উপজেলার অমরপুর গ্রামের ময়নুদ্দীন শাহ্র ছেলে। শাহীন জানান, ২০০০ সালে মাত্র ৫টি গাভী দিয়ে তিনি খামার শুরু করেন। বর্তমানে শংকর জাতের ৮০টি গরুর মালিক। এর মধ্যে গাভী ৪০টি, বকনা ১৫টি, ষাঁড় ৫টি ও বাছুর ২০টি রয়েছে। এর আনুমানিক মূল্য  ১ কেটি টাকা। ৫টি গরু নিয়ে খামার শুরুর পর দৈনিক দুধ উৎপাদন হতো ২৫ লিটার। এখন ৪০টি গাভী থেকে দৈনিক ২৫০ লিটার দুধ উৎপাদন হয়। এ দুধ স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে মিল্কভিটা, ব্র্যাক চিলিং সেন্টারসহ বিভিন্ন বাজারের মিষ্টির দোকানে সরবরাহ করা হয়। বছরে ষাঁড় ও বাছুর বিক্রি করেও প্রায় ১ লাখ টাকা অতিরিক্ত আয় হয়। খামারের আয় দিয়ে একটি বায়োগ্যাস প্লান্ট স্থাপন করা হয়েছে, যা দিয়ে বাড়ি ও খামারের যাবতীয় রান্নার কাজে জ্বালানি চাহিদা পূরণ করা হয়। এছাড়াও গরুর গোবর থেকে মাসিক ১০ হাজার টাকা আয় হচ্ছে। 

শাহীন সরকারের কাছ থেকে আরও জানা যায়, তাকে উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিস থেকে একটি ক্রিম সেপারেটর মেশিন সরবরাহ করা হয়েছে। সমপ্রতি তিনি ওই মেশিনের সাহায্যে ঘি তৈরি করে অতিরিক্ত আয় করছেন। ডেইরি খামারের পাশাপাশি একটি ছাগলের খামারও গড়ে তুলেছেন। এ খামারে ছাগলের সংখ্যা এখন ৩০টি। প্রতি বছর ছাগল বিক্রি করে প্রায় ১ লাখ ২০ হাজার টাকা আয় হয়। খামারে গরু ও ছাগলের পরিচর্যার জন্য ৫ জন শ্রমিক নিয়োগ করেছেন। এতে ৫ পরিবারের জীবন সংস্থান হয়েছে। শাহীন বলেন, সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা পেলে তিনি বাংলাদেশের একজন সেরা খামারিই শুধু নয়, তার এই খামারকে দেশের মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবেন। এ খামার সম্পর্কে চিরিরবন্দর প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. তারেক হোসেন জানান, উপজেলার ১৯৯ খামারের মধ্যে শাহীন প্রথম সারিতে অবস্থান করছেন। তার মতো অবশিষ্ট খামারগুলো উন্নতি করতে পারলে এলাকায় দুধ ও আমিষের চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করা যাবে। যা দেশের অর্থনীতিতে বড় সহায়ক হতে পারে।

 

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ