শেখ হাসিনার জাতি সংঘের আগমন উপলক্ষ্যে নিউজার্সী বিএনপির বিক্ষোপের ব্যাপক প্রস্তুতি

September 17, 2017, 10:33 AM, Hits: 762

শেখ হাসিনার জাতি সংঘের আগমন উপলক্ষ্যে নিউজার্সী বিএনপির বিক্ষোপের ব্যাপক প্রস্তুতি

আকবর হোসাইন,হ-বাংলা নিউজ: আটলান্টিক সিটি থেকে :-নানাবিধ  আয়োজনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল  বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি অব নিউ জার্সি স্টেটের আয়োজিত বিএনপির  ৩৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। গত ১৩ই সেপ্টেম্বর ২০১৭ আটলান্টিক সিটির মিস্টার স্টেক রেস্টুরেন্টে অনুষ্ঠিত প্রতিষ্ঠা   বার্ষিকীতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের উপদেষ্টা আজিজুল ইসলাম ফেরদৌস এবং   সাধারণ সম্পাদক  রহমান বাবুলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন  নিউজার্সী বিএনপির উপদেষ্ঠা জহিরুল ইসলাম বাবুল, সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন,নাজমুল হাসান, মোঃ আলী, শহিদুল আনোয়ার, মোসাদ্দকুল মাওলাসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।নেতৃবৃন্দ বলেন জাতি সংঘের সামনে ব্যাপক বিক্ষোভের মাধ্যমে প্রমান করতে হবে এবং বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরতে হবে যে যুক্তরাষ্ট্রের মত  গনতান্ত্রিক দেশে গনতন্ত্র হত্যাকারীদের কোন জায়গা নেই।বিক্ষোভের জন্য শতাধিক লোকের একটি বিশাল বহর জাতিসংঘের সামনে উপস্থিত থাকবে বলে তারা জানান।

জাতীয় সঙ্গীত ও দলীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মাধ্যমে মূল পর্ব শুরু হয়।নেতৃবৃন্দ আরও   বলেন গনতন্ত্র বিপন্নকারী আওয়ামীলীগ রাজাকারদেরকে তাদের দলে ঠাই দিচ্ছে এবং তাদের নীতি বিরোধী  সকল মুক্তিযোদ্ধাদেরকে এখন রাজাকার বানাচ্ছে।,তারা বলেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির   প্রতিষ্ঠা বাংলাদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসে খুবই তাৎপর্যপূর্ন কারন দলের  প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ঘোষনার মধ্য দিয়েই মুক্তিযু্দ্ধের সূচনা হয়েছে। হাজার হাজার মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতাকে আওয়ামীলীগ বর্তমানে রাজনৈতিক ফায়দা লুটার কাজে ব্যবহার করছে। দেশে বর্তমানে অঘোষিত একদলীয় বাকশালীয় শাসন ব্যবস্থা চলছে,মানুষের কথা বলার স্বাধীনতা নেই,গুম খুন চলছে অহরহ,। বিচার বিভাগ আজ হুমকির সম্মুখীন।হাজার হাজার মানুষকে বিভিন্ন উসিলায় মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে ।এই মৃত্যুর জন্য প্রাক্তন বিচারপতি খায়রুল হক এবং শেখ হাসিনাই দায়ী।

মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তুলে ধরার চেষ্ঠা করলেই তাদেরেকে রাজাকার বলা হয়।তিনি বলেন জিয়াউর রহমান তার মেধা দিয়ে ৭ কোটি জনগনের দোড় গোড়ায় পৌছেছিলেন তাই তার মৃত্যুর এত বছর পরও বিএনপি বাংলাদেশের সর্বোচ্ছ জনপ্রিয় দল।গনমুখী রাজনীতির প্রচলন জিয়াউর রহমান করলেও, আওয়ামীলীগ গনমুখী রাজনীতি বন্ধ করে একদলীয় বাকশলী রাজনীতি এবং ভারতের তাবেদারী রাষ্ট্র হিসাবে দেশকে পরিনত করেছে।সুষ্ঠ নির্বাচন হলে আওয়ামীগ ১০০ আসন পাওয়া তা দূরের কথা, দেশ ছেড়ে পালানোর সুযোগ পাবেনা।আগে আওয়ামীলীগকে বলা হত কম্বল চোরের দল বর্তমানে তার সাথে যুক্ত হয়েছে রিলিফ চোর এবং ব্যাংক চোর। তারা যতদিন ক্ষমতায় থাকবে ততদিন চুরির ফিরিস্তি বৃদ্ধি পেতে থাকবে।বন্যার নামে দেশের বিভিন্ন ব্যাংকের মালিক থেকে রিলিফ দেওয়ার জন্য টাকা তুলে সব টাকা আগামী নির্বাচনে ব্যবহারের জন্য রেখে দেয়া হয়েছে।

দেশকে আওয়ামীলীগ থেকে মুক্ত করতে হলে অবৈধ এ সরকারকে সরাতে হবে,।বন্যাঢ্য প্রতিষ্টা বার্ষিকীর এ সুন্দর আয়োজনের জন্য নিউজার্সি ষ্টেট বিএনপির প্রশংসা করে বলেন জিয়াউর রহমান বিএনপির জন্ম দিয়েছিলেন বলেই দেশে এবং বিদেশে সবাই রাজনীতি করার সুযোগ পাচ্ছেন। দলীয় নেতা কর্মীদের নিয়ে সমবেত কণ্ঠে দলীয় সঙ্গীত পরিবেশন করে  কেক কাটেন নেতৃবৃন্দ। আগামী  ২১শে সেপ্টেম্বর খুনী হাসিনার জাতিসংঘে ভাষনদান কালে ব্যাপক বিক্ষোভ ও প্রতিবাদের ঘোষনাদেন। অনেক বৈরী আবহাওয়ার মাঝে ও নেতা কর্মীরা উক্ত অনুষ্ঠানে যোগদান করেন। মোনাজাত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের বন্যা কবলিত এলাকার মানুষের জন্য এবং বার্মার আরাকানের নিপীড়িত রুহিংগা মুসলিমদের জন্য বিশেষভাবে দোয়া করা হয় মোনাজাত পরিচালনা করেন ওবাইদ চৌধুরী।

 

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ