কথিত বুফলার আরেক নেতার কু-কর্ম

November 4, 2017, 1:35 PM, Hits: 2133

কথিত বুফলার আরেক নেতার কু-কর্ম

বিয়ানীবাজারবার্তা২৪.কম : বিয়ের ৭ মাসের মাথায় পরপারে পাড়ি দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী মাতাব উদ্দিনের স্ত্রী লিজা বেগম। 

গত  শুক্রবার সিলেটের সুবিধবাজার এলাকার কর্ণার ভিউয়ের ৭ম তলার বাসায় লিজা মৃত্যুবরণ করেন। তার গলায় ফাঁস লাগানো থাকলেও দু'পা মাটিতে রয়েছে। ফলে মাতাবের পরিবার লিজা অাত্মহত্যা করেছে বললেও পুরো বিষয়টি নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। সকাল ১০ টার দিকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করেছে। 

লিজা সুলতানার শ্বশুরবাড়ির লোকজন আত্মহত্যা বলে দাবি করছেন। তবে লিজার মামা বিয়ানীবাজার চারখাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল আহমদ দাবি করছেন, এটা স্পষ্ট একটি হত্যা। লিজার শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে খুন করে লাশ ঝুলিয়ে রেখেছে। তিনি দাবি করেন, পাঁচ ফুট দুই ইঞ্চি উচ্চতার একজন মানুষ ছয় ফুট বেলকনিতে কি করে আত্মহত্যা করতে পারে । এছাড়া পুলিশ যখন লিজার লাশ উদ্ধার করে তখন হাঁটু মেঝেতে লাগানো অবস্থায় ছিলো। কোন সুস্থ মানুষ এটাকে আত্মহত্যা বলতে পারে না বলে তিনি দাবি করেন।

লিজার স্বামী মাতাব উদ্দিন আগে আরো একটি বিয়ে করেছিলেন। সেই স্ত্রীর কথা তাদের জানানো হয়নি। এ নিয়ে আগের স্ত্রী বেকেঁ বসলে লিজাকে তিনি ২০ লাখ টাকা নিয়ে চলে যেতে বলেন। লিজা রাজি না হওয়াতে লিজার শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে মারধর করেন বলে তিনি অভিযোগ করেন।

এদিকে, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ (এসএমপি) এর কোতোয়ালি থানার ওসি গোছুল হোসেন বলেন, এটা আত্মহত্যা। তবে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, লাশের হাটু পর্যন্ত মেঝেতে লাগানো অবস্থায় ছিলো বলে তিনি শুনেছেন। মেডিকেল রির্পোট পাওয়া গেলে বিষয়টা বুঝা যাবে বলে জানান তিনি।

নিহত লিজার শ্বশুরবাড়ি বড়লেখা উপজেলার হাটবন এলাকায়। সিলেট ওসমানী হাসপাতালের অধ্যক্ষ ডা. মুরশেদ আহমদ এর বোন জামাই ব্যবসায়ী মতিউর রহমান চৌধুরীর ফ্লাটে লিজাকে নিয়ে শ্বশুরবাড়ির লোকজন ভাড়া থাকেন।

গত বৃহস্পতিবার রাতে লিজার শ্বশুরবাড়ির লোকজনের সাথে লিজার সমস্যা হলে লিজার ছোট ভাই রোকসান আহমাদ তাদের ফ্লাটে আসেন। পরে রাতে তিনি চলে যাওয়ার পর আবারো লিজার সাথে শ্বশুরবাড়ির লোকজনের সমস্যা হয় বলে ইকবাল আহমদ দাবি করেন। এরই জেরে লিজাকে হত্যা করে লাশ বেলকনিতে ঝুলিয়ে দেয়া হয় বলে দাবি করেন তিনি।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কর্ণার ভিউ এর ৭ম তলার ফ্লাটের দরজা বন্ধ। কলিংবেল টিপলে লিজার দেবরের স্ত্রী পাশের জানালা দিয়ে কথা বলেন। পরিচয় দিয়ে দরজা খোলার কথা বললে তিনি বলেন, আমরা কোন কথা বলতে পারবো না। পুলিশের পক্ষ থেকে নিষেধ আছে। তার স্বামী বাসায় আছেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, তার স্বামী কথা বলেন না।

এ ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান লিজার মামা ইকবাল হোসেন। 

লিজা সুলতানার শ্বশুরবাড়ির লোকজন আত্মহত্যা বলে দাবি করছেন। তবে লিজার মামা বিয়ানীবাজার চারখাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল আহমদ দাবি করছেন, এটা স্পষ্ট একটি হত্যা। লিজার শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে খুন করে লাশ ঝুলিয়ে রেখেছে। তিনি দাবি করেন, পাঁচ ফুট দুই ইঞ্চি উচ্চতার একজন মানুষ ছয় ফুট বেলকনিতে কি করে আত্মহত্যা করতে পারে । এছাড়া পুলিশ যখন লিজার লাশ উদ্ধার করে তখন হাঁটু মেঝেতে লাগানো অবস্থায় ছিলো। কোন সুস্থ মানুষ এটাকে আত্মহত্যা বলতে পারে না বলে তিনি দাবি করেন।

লিজার স্বামী মাতাব উদ্দিন আগে আরো একটি বিয়ে করেছিলেন। সেই স্ত্রীর কথা তাদের জানানো হয়নি। এ নিয়ে আগের স্ত্রী বেকেঁ বসলে লিজাকে তিনি ২০ লাখ টাকা নিয়ে চলে যেতে বলেন। লিজা রাজি না হওয়াতে লিজার শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে মারধর করেন বলে তিনি অভিযোগ করেন।

এদিকে, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ (এসএমপি) এর কোতোয়ালি থানার ওসি গোছুল হোসেন বলেন, এটা আত্মহত্যা। তবে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, লাশের হাটু পর্যন্ত মেঝেতে লাগানো অবস্থায় ছিলো বলে তিনি শুনেছেন। মেডিকেল রির্পোট পাওয়া গেলে বিষয়টা বুঝা যাবে বলে জানান তিনি।

নিহত লিজার শ্বশুরবাড়ি বড়লেখা উপজেলার হাটবন এলাকায়। সিলেট ওসমানী হাসপাতালের অধ্যক্ষ ডা. মুরশেদ আহমদ এর বোন জামাই ব্যবসায়ী মতিউর রহমান চৌধুরীর ফ্লাটে লিজাকে নিয়ে শ্বশুরবাড়ির লোকজন ভাড়া থাকেন।

গত বৃহস্পতিবার রাতে লিজার শ্বশুরবাড়ির লোকজনের সাথে লিজার সমস্যা হলে লিজার ছোট ভাই রোকসান আহমাদ তাদের ফ্লাটে আসেন। পরে রাতে তিনি চলে যাওয়ার পর আবারো লিজার সাথে শ্বশুরবাড়ির লোকজনের সমস্যা হয় বলে ইকবাল আহমদ দাবি করেন। এরই জেরে লিজাকে হত্যা করে লাশ বেলকনিতে ঝুলিয়ে দেয়া হয় বলে দাবি করেন তিনি।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কর্ণার ভিউ এর ৭ম তলার ফ্লাটের দরজা বন্ধ। কলিংবেল টিপলে লিজার দেবরের স্ত্রী পাশের জানালা দিয়ে কথা বলেন। পরিচয় দিয়ে দরজা খোলার কথা বললে তিনি বলেন, আমরা কোন কথা বলতে পারবো না। পুলিশের পক্ষ থেকে নিষেধ আছে। তার স্বামী বাসায় আছেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, তার স্বামী কথা বলেন না।

এ ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান লিজার মামা ইকবাল হোসেন।  

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ