শুয়া চান পাখি আর জাগবে না

November 23, 2017, 10:31 PM, Hits: 123

 শুয়া চান পাখি আর জাগবে না

শুয়া চান পাখি আমার

আমি ডাকিতাছি তুমি ঘুমাইছ নাকি

তুমি আমি জনম ভরা ছিলাম মাখামাখি

আইজ কেন হইলে নীরব, মেল দুটি আঁখি রে পাখি

আমি ডাকিতাছি তুমি ঘুমাইছ নাকি...’

বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে হঠাৎ একটি টিভি চ্যানেলে দেখানো হচ্ছে গানটি। শিল্পী বারী সিদ্দিকী। বুঝতে আর বাকি নেই, থেমে গেছে সব, শুয়া চান পাখিকে আর ডাকবেন না তিনি। ছুটে যাই রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে। বাইরে জটলা। গভীর রাতে খবর পেয়ে অনেকেই ছুটে এসেছেন। 

হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে আসে অ্যাম্বুলেন্স। বড় ছেলে সাব্বির সিদ্দিকী জানালেন, কাফনের জন্য মোহাম্মদপুরে আঞ্জুমানে মফিদুল ইসলামে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। সেখান থেকে মরদেহ সকাল ৭টায় ধানমন্ডি ১৪ /এ সড়কে তাঁর বাসায় নিয়ে যাওয়া হবে। সকাল সাড়ে ৯টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে বারী সিদ্দিকীর প্রথম জানাজা হবে। সকাল সাড়ে ১০টায় দ্বিতীয় জানাজা হবে বাংলাদেশ টেলিভিশন ভবনে। বাদ আসর তৃতীয় ও শেষ জানাজা হবে নেত্রকোনা সরকারি কলেজে। এরপর বারী সিদ্দিকীকে নেত্রকোনার কারলি গ্রামে ‘বাউল বাড়ি’তে দাফন করা হবে। 

নেত্রকোনা শহরে তাঁর দুটি বাড়ি, পড়ে আছে অবহেলা আর অযত্নে। তাঁর পৈতৃক বাড়ি সদর উপজেলার কাইলাটি ইউনিয়নের ফচিকা গ্রামে। এখানেই ১৯৫৪ সালের ১৫ নভেম্বর জন্মগ্রহণ করেন বারী সিদ্দিকী। মাত্র কদিন আগেই ছিল তাঁর জন্মদিন। কিন্তু নিজের জন্মদিন তিনি কখনোই উদ্যাপন করেননি। বলতেন, ‘এগুলো ছোটদের ব্যাপার। ছোটরা করবে।’ 

নেত্রকোনা শহর থেকে ৫ কিলোমিটার দূরে কারলি গ্রাম। এখানে ২৫০ শতক জমির ওপর তিনি গড়ে তোলেন আশ্রম, নাম ‘বাউল বাড়ি’। তাঁর ভাষায়, ‘আপনি বৃষ্টি দেখতে চান? এখানে এক তলার ছাদে বসলে চারদিকে ২ কিলোমিটার শুধু বৃষ্টি দেখতে পাবেন। রোদ দেখতে চান? ২ কিলোমিটার শুধু রোদ। কুয়াশা? তাও।’ এমনি নিরিবিলি পরিবেশে এই আশ্রম গড়েছিলেন চোখ ভরা স্বপ্ন নিয়ে। এই বাউল বাড়িতে ছোট্ট ছেলেমেয়েরা থাকবে, সংগীত চর্চা করবে, খেলাধুলা করবে, শিশু-কিশোর বান্ধব পরিবেশে তারা বড় হবে। শেষ পর্যন্ত তা আর সম্ভব হয়নি, স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে যায়। 

তবে সাব্বির সিদ্দিকীকে বলে গেছেন তাঁর শেষ ইচ্ছার কথা। মৃত্যুর পর এই ‘বাউল বাড়িতেই’ যেন তাঁকে সমাহিত করা হয়।  

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ