একটি ছবি

January 23, 2018, 12:42 PM, Hits: 909

একটি ছবি

হ-বাংলা নিউজ : অধীন উপনিবেশে সবসময় প্রভুরা এভাবেই ছবি তোলে হে আমার স্বদেশবাসী। দেশটারে আমরা ভারতের নয়া উপনিবেশ বানাইলাম। এই লজ্জা আমরা কই রাখি। ভারতের দুতাবাসে ঠিক একইভাবে প্রণব মুখার্জি ছবি তুলেছে আর আমাদের দেশের সব এলিট পিছনে দাঁড়িয়েছে। ভাগ্য ভালো অতিভক্তি দেখাইতে গিয়া সামনে দুই একজন বইস্যা পড়ে নাই। সেই ছবিগুলো গোটা জাতির মর্যাদায় আঘাত করেছে।ভারতের হা্ই কমিশনারের সাথে এককাতারে দাড়িয়ে আমাদের দেশের স্পীকার, সিনিয়র কয়েকজন মন্ত্রী এবং সাবেক একজন রাষ্ট্রপতি। সামনে ভারিক্কি ভঙ্গিতে চেয়ারে বসে আছেন ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি। এ ছবি দেখে অনেকে অনেক প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। আমারো কিছু প্রতিক্রিয়া হলো যা না লিখে পারলাম না। 

ক. ছবিটি দেখে আমি দু:খ পেলেও অবাক হইনি। প্রনববাবু ভারতের রাষ্ট্রপতি থাকা অবস্থায় বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে খবরদারিত্ব করতেন। হয়তো এখনো করেন। ছবির শরীরি ভাষা তাই বলে। 

খ. দু:খটা আমাদের নেতাদের নিয়ে। যুদ্ধ করে স্বাধীন হয়েছে আমার দেশ। এ দেশের বহু নেতার মধ্যে তারপরও আত্নমর্যাদাবোধের এতো অভাব কেন? 

গ. অন্যদের প্রসঙ্গ না হয় বাদ দিলাম। এরশাদ সাহেব তো প্রণব বাবুর চেয়ে বয়েসে বড়, প্রণব যখন সাধারন একজন মন্ত্রী, এরশাদ ছিলেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি। বসে থাকা প্রণবের পেছনে অন্যদের সাথে তিনি কিভাবে দাড়িয়ে গেলেন? 

আমরা লজ্জা পাচ্ছি। তারা কি পাচ্ছেন একটুও?

জামাইবাবু

কোনো জামাই শ্বশুর বাড়ি গেলে সেখানকার সিনিয়রদেরকে পা ছুঁয়ে সালাম করতে করতে জান বাইর হইয়া যাওয়ার দশা হয়। এ ছবিতে দেখছি পুরা উল্টা! উইকিপিডিয়া অনুসারে, প্রণবের বয়স ৮২। এরশাদের বয়স ৮৭ এবং আবুল মাল আব্দুল মুহিতের বয়স ৮৩।প্রণব মুখার্জি রাষ্ট্রপতি হওয়ার ৩১ বছর আগে এরশাদ রাষ্ট্রপতি হয়েছিলেন।বাস ট্রেনেও মহিলাদের সম্মান করে সিট ছেড়ে বসতে দেয়া হয় । এখানে যে মহিলা আছেন তিনি স্পিকার । রাষ্ট্রচারে স্পিকার রাষ্ট্রের তৃতীয় ব্যাক্তি। অন্তত তাকেও সে সম্মানটুকু কি দেয়া উচিৎ ছিলো না ? সমাজ ও দেশের জন্য কি এটা খুবই গর্বের দৃশ্য? উপনিবেশে সবসময় প্রভুরা এভাবেই ছবি তোলে ঃ

  Inline image 

 
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ