১৫২ বছর পর আবারো দেখা দিতে যাচ্ছে পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ ও অতিপ্রাকৃতিক “ সুপার ব্লু মুন” , ৩১ জানুয়ারি রাতে

January 28, 2018, 10:07 PM, Hits: 930

১৫২ বছর পর আবারো দেখা দিতে যাচ্ছে পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ ও অতিপ্রাকৃতিক “ সুপার ব্লু মুন” , ৩১ জানুয়ারি রাতে

হানিফ সিদ্দিকী, হ-বাংলা নিউজ, হলিউড থেকে: ইতিহাসের বিরল ঘটনার প্রত্যক্ষ স্বাক্ষী হতে চাইলে আগামি ৩১শে জানুয়ারি আপনি যেখানেই থাকুন না কেন, কিছু একান্ত সময় বের করে নিয়ে সন্ধ্যার পর থেকে চোখ রাখুন সুবিশাল আকাশে দীপ্যমান চাঁদের পানে । তাহলে আপনি স্বাক্ষী হতে পারবেন সুদীর্ঘ ১৫২ বছর পর ঘটতে যাওয়া বিরল এক দৃশ্য এবং তার ইতিহাসের । কারণ এই রাতে ঘটবে পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ এবং পূর্নিমার ভরা চাঁদ রূপান্তরিত হবে এক অতিপ্রাকৃতিক “Super Blue Moon”- এ । সূত্র : নাসা ( আমেরিকার মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ) ।

এইরাতে চাঁদ তার কক্ষপথে পৃথিবীর সবচেয়ে নিকটবর্তী অবস্থানে । চাঁদের আয়তন হবে অন্য সব পূর্নিমা চাঁদের চেয়ে ১৪% বড় ও ৩০% বেশি উজ্জ্বল । একই সংগে ঘটবে ব্লু মুন-এর আবির্ভাব ও ভরা পূর্নিমা ।পৃথিবীর যে সব দেশের যে সব অন্চল থেকে এই বিরল সুপারন্যাচারাল দৃশ্য পরিষ্কার দেখা যাবে তাদের মধ্যে রয়েছে গোটা পূর্ব এশিয়া ও আমেরিকার পশ্চিম উপকূল যার মধ্যে রয়েছে ক্যালিফোর্নিয়া, ওয়াশিংটন ও ওরেগন রাজ্য । এশিয়ার দক্ষিণান্চলের দেশগুলো ( যার মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ) এবং আমেরিকার পূর্ব উপকূলের রাজ্যগুলি থেকে এই দৃশ্য আংশিক দেখা যাবার সম্ভাবনা প্রবল ।

এক পর্যায়ে এসে চাঁদ রক্তাভ লাল বর্ণ ধারণ করবে আবার তারপরে আরেক পর্যায়ে এসে তার উজ্জ্বলতা হারিয়ে ফেলবে । তবে বদলে যাবার এই পর্যায়টা থাকবে অনেকক্ষণ । প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত গোটা পর্বটি খালি চোখে দেখা যাবে এবং এজন্য সূর্যগ্রহণ দেখার সময়ে প্রয়োজন হয় এরকম কোন চক্ষু রক্ষাকারী অবলম্বন নিতে হবে না ।বিজ্ঞানীরা বলছেন, যারা এই রাতে এরকম অতিপ্রাকৃতিক দৃশ্য দেখা থেকে নিজেদের বন্ছিত করবেন, তারা আগামি এক দশক বা তারও বেশি সময় এহেন সুযোগ আর পাবে না । 

 
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ