বঙ্গবন্ধু কোন দলের নয়, তিনি বাংলার এবং বাঙালীর - যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের উদ্যোগে জাতির জনকের জন্মদিনে বক্তারা

March 20, 2018, 1:24 AM, Hits: 168

বঙ্গবন্ধু কোন দলের নয়, তিনি বাংলার এবং বাঙালীর - যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের উদ্যোগে জাতির জনকের জন্মদিনে বক্তারা

হ-বাংলা নিউজ : স্বীকৃতি বড়ুয়া, মার্চ ২০, ২০১৮, নিউইয়র্কঃ যথাযোগ্য মর্যাদায় যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের উদ্যোগে পালিত হল জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর জন্মদিন এবং জাতীয় শিশু-কিশোর দিবস। গত ১৮ই মার্চ রবিবার নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের এক রেস্তোরাঁয় এই অনুষ্টানের আয়োজন করা হয় এবং এতে সভাপতিত্ব করেন বঙ্গবন্ধু পরিষদ যুক্তরাষ্ট্র শাখার সভাপতি বীর  মুক্তিযোদ্ধা ডঃ নুরুন নবী। অনুষ্ঠানে কবিতা আবৃত্তি, 'অসমাপ্ত আত্মজীবনী' বই থেকে পাঠ এবং বঙ্গবন্ধুর জীবন ও আদর্শ নিয়ে আলোচনা করেন উপস্থিত নেতৃবৃন্দ। সব্যসাচী লেখক সৈয়দ সামসুল হকের জনপ্রিয় কবিতা 'আমার পরিচয়' আবৃত্তি করেন আবৃত্তিকার পারভিন সুলতানা এবং বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে স্বরচিত কবিতা আবৃত্তি করে শুনান ছোট্ট বন্ধু সাকিব চৌধুরী। এক গরীব বৃদ্ধার কয়েক ঘণ্টা রাস্তায় দাড়িয়ে থেকে বঙ্গবন্ধুকে তার কুঁড়েঘরে নিয়ে যাওয়া এবং সঞ্চিত চার আনা পয়সা বঙ্গবন্ধুকে দেওয়ার অংশটি 'অসমাপ্ত আত্মজীবনী' থেকে পাঠ করে শুনান যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক চন্দন দত্ত।আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন আজকে আমরা কেক কেটে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালন করছি, কারণ উনি আমাদের জাতির পিতা এবং শিশু কিশোরদের নিয়ে আমারা উনার জন্মদিন উদযাপন করতে চাই। কিন্তু জীবদ্দশায় বঙ্গবন্ধু কেক কেটে কখনো নিজের জন্মদিন পালন করতেন না, তিনি সব সময় যাদের কেক কেনার সামর্থ্য নেই তাদের কথা চিন্তা করেছেন, গরীবদের কথা চিন্তা করেছেন।

 বঙ্গবন্ধু বাঙালীর অধিকার আদায়ের জন্য প্রতিঠি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সঠিক ভাবে এবং সাহসের সাথে। সাধারণ মানুষকে বুঝার এক অসাধারণ ক্ষমতা ছিল বঙ্গবন্ধুর। বক্তারা আরও বলেন বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কোন বিতর্ক নেই, তিনি কোন দলের বা গোষ্ঠীর নয়, তিনি বাংলার এবং বাঙালীর। যারা বঙ্গবন্ধুকে স্বীকার করতে চায়না, তাদের বুঝার ক্ষমতা নেই বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামের, ত্যাগের সুফল তারাও ভোগ করছে প্রতিনিয়ত।  বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা পৃথিবীর সব দেশে জন্ম নেন না, আমাদের সেই সৌভাগ্য হয়েছিল। কিন্তু এতবড় নেতাকে আমরা ধারণ করতে পারিনি, তাই রক্ষাও করতে পারিনি।  আমাদের কাজ হবে নতুন প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধুর জীবন, আদর্শ ও সংগ্রামের সাথে পরিচিত করা। সংগঠনের সভাপতি ডঃ নুরুন নবী শিশু কিশোরদের নিয়ে আগামীতে আরও বড় আকারে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালনের আশ্বাস দেন। আলোচনা শেষে সমবেতরা কেক কেটে 'শুভ শুভ শুভ দিন, বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন' বলে অনুষ্ঠান শেষ করেন। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা যথাক্রমে মনির হোসেন, গোলাম মোস্তাফা মিরাজ, ডঃ জিনাত নবী,  রাশেদ আহমেদ, লাভলু আনসার, ডঃ আব্দুল বাতেন ও শরাফ সরকার, অধ্যক্ষ নবেন্দু দত্ত, ডঃ টমাস দুলু রায়, অধ্যাপিকা হোসনে আরা, কৌশিক আহমেদ, শাহিন আজমল, ওবায়দুল্লাহ মামুন, মনিজা রহমান, সিবলি সাদেক, ফজলে আলী, প্রমুখ। সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা সুব্রত বিশ্বাস,সাংবাদিক নিনি ওয়াহেদ, শাহিদ রেজা নুর,  বিশ্বজিত সাহা, প্রমুখ। অনুষ্ঠানের সার্বিক পরিচালনায় ছিলেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রাফায়েত চৌধুরী, সঞ্চালনায় ছিলেন যুগ্মসাধারণ সম্পাদক স্বীকৃতি বড়ুয়া এবং সার্বিক সহযোগিতায় যুগ্মসাধারণ সম্পাদক ছিলেন মাহবুবুর রহমান টুকু।  

 
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ