টোকিওর ফ্যাশন ওয়ার্ল্ডে বাংলাদেশ

April 4, 2018, 1:31 AM, Hits: 408

টোকিওর ফ্যাশন ওয়ার্ল্ডে বাংলাদেশ

হ-বাংলা নিউজ :  জাপানের টোকিওতে আজ বুধবার (৪ এপ্রিল) থেকে শুরু হয়েছে টোকিও ফ্যাশন ওয়ার্ল্ড। চলবে আগামী ৬ এপ্রিল পর্যন্ত। এই ফ্যাশন ওয়ার্ল্ডে এবার বাংলাদেশ থেকে সর্বাধিকসংখ্যক উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করেছে। ফ্যাশন ওয়ার্ল্ডে আজ সকালে ফিতা কেটে বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নের উদ্বোধন করেন দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা। পরে তিনি প্যাভিলিয়নের বাংলাদেশের স্টলগুলো পরিদর্শন করেন ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলেন।

বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে পণ্য

বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে পণ্য

টোকিওর বিগ সাইটে অনুষ্ঠিত এই মেলায় বাংলাদেশের ৪৪টি নিটওয়্যার ও চামড়া শিল্প প্রতিষ্ঠান তাঁদের দ্রব্যের পসার নিয়ে এসেছে। মেলায় বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে নিটওয়্যার কোম্পানিগুলো তাদের উন্নত ও আধুনিক পোশাক সামগ্রী এবং চামড়া প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানসমূহ বিভিন্ন রুচিসম্মত ও উন্নতমানের দ্রব্যাদির প্রদর্শন করছে। বাংলাদেশের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো মেলায় বাংলাদেশি উদ্যোক্তাদের সার্বিক তত্ত্বাবধান ও নেতৃত্ব দিচ্ছে। অংশগ্রহণকারী ব্যবসায়ীরা আশা প্রকাশ করেন, এই আয়োজনে অংশগ্রহণ করার মধ্যে দিয়ে তারা জাপানিসহ অন্যান্য দেশের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পরিচয়, মতবিনিময় ও অধিকসংখ্যক ক্রেতা প্রতিষ্ঠানের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হবেন। মেলাটি দুই দেশের ব্যবসায়ীদের মধ্যে যোগাযোগের অন্যতম প্ল্যাটফর্ম হিসেবে রূপ নেবে বলেও বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা মনে করেন।

বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে পণ্য

বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে পণ্য

মেলার পাশাপাশি আজ সকালে মেলার সেমিনার ভেন্যুতে বাংলাদেশের নিটওয়্যার ও জাপানে বাংলাদেশের নিটওয়্যারের সম্ভাবনা নিয়ে এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ দূতাবাস, বাংলাদেশের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়; বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার অ্যাসোসিয়েশন (বিকেএমইএ) এবং রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর উদ্যোগে আয়োজিত সেমিনারে সহযোগিতা করে জাপান এক্সটারনাল ট্রেড অর্গানাইজেশন (জেট্রো), ইউনাইটেড ন্যাশনস ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন (ইউনিডো) ও টোকিও চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি, জাপান-বাংলাদেশ কমিটি ফর কমার্শিয়াল অ্যান্ড ইকোনমিক কো-অপারেশন এবং জাপান টেক্সটাইল ইমপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন। প্রায় এক শ জাপানি ক্রেতা প্রতিষ্ঠান সেমিনারে যোগদান করে।

সেমিনার

সেমিনার

সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য দেন রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা। তিনি বলেন, জাপানে বাংলাদেশি উন্নতমানের পণ্যসামগ্রীর বাজার সম্প্রসারণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। এই মেলা জাপান-বাংলাদেশ বাণিজ্য সম্পর্ক আরও গভীর করতে সহায়তা করবে বলে রাষ্ট্রদূত দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন। 

বিকেএমইএর পক্ষ থেকে বাংলাদেশে নিটওয়্যারের বর্তমান অবস্থা এবং ভবিষ্যৎ সম্ভাবনা নিয়ে সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়। এ ছাড়া নিবন্ধ উপস্থাপনা করেন জেট্রোর সিনিয়র পরিচালক তাকাশি সুজুকি ও মারুহিসা কোম্পানির প্রেসিডেন্ট মাশাহিরু হিরাইশি। আলোচকেরা বাংলাদেশে বিনিয়োগের উপযুক্ত পরিবেশ এবং বাংলাদেশ সরকার প্রদত্ত সুযোগ-সুবিধার কথা সবার কাছে তুলে ধরেন। 

মেলায় বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে প্রচুর দর্শনার্থীর সমাগম দেখা যায়। 

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ