সাকিবদের ফাইনালে ওঠার লড়াই আজ

May 21, 2018, 3:49 PM, Hits: 300

সাকিবদের ফাইনালে ওঠার লড়াই আজ

হ-বাংলা নিউজ :  শেষ চারে সাকিব আল হাসানের দলে যাওয়াটাই নিশ্চিত হয়েছিল সবার আগে।  আজ ফাইনালে দলটির প্রতিপক্ষ চেন্নাই সুপার কিংস। আজ সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় শুরু হওয়া ম্যাচে মুম্বাই ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে জিতে গেলেই ফাইনালের টিকেট পেয়ে যাবে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ।

সাতটি দল মিলে ৫৬ ম্যাচের লড়াইয়ে প্লে-অফের জন্য টিকে রইল চারটি দল। এ চার দল থেকে উঠে আসবে এবারের আইপিএলে দুই ফাইনালিস্ট। রোববার মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে যে দুই দল মুখোমুখি হবে শিরোপার লড়াইয়ে।

এবারে প্লে-অফে হায়দ্রাবাদ ও চেন্নাই বাদে বাকি দুটো দল হচ্ছে কলকাতা নাইট রাইডার্স ও রাজস্থান রয়্যালস। এর মধ্যে সবার আগে প্লে-অফ নিশ্চিত করেছে সাকিব আল হাসানদের হায়দ্রাবাদ। তারপরেই চেন্নাই নিশ্চিত করে প্লে-অফ। দুই দলের সমান পয়েন্ট হলেও রানরেটের বিবেচনায় তালিকার শীর্ষে আছে হায়দ্রাবাদ। চেন্নাই আছে দুই নম্বরে। কলকাতা ১৬ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় ও ১৪ পয়েন্ট নিয়ে ৪ নম্বরে আছে রাজস্থান।

তৃতীয় ও চতুর্থ দল হিসেবে কলকাতা ও রাজস্থান বুধবার মুখোমুখি হবে ইলিমিনেটরে। ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে। আইপিএলের নিয়ম অনুসারে শীর্ষ দুই দলের খেলা প্রথম কোয়ালিফায়ার জয়ী দল সরাসরি চলে যাবে ফাইনালে। আর পরাজিত দল ইলিমিনেটর রাউন্ডের জয়ী দলের সাথে খেলবে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচ। সেটি অনুষ্ঠিত হবে শুক্রবার, ইডেনে। এই ম্যাচের জয়ী দলই হবে ফাইনালের দ্বিতীয় দল।

লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে পুনেতে রোববার রাতে কিংস ইভেলেন পাঞ্জাবকে ৫ উইকেটে হারালো চেন্নাই সুপার কিংস। আর এর মধ্য দিয়েই হয়ে যায় প্লে-অফের মীমাংসা। আগে ব্যাট করে ১৯.৪ ওভারে ১৫৩ রানে অল আউট হয় পাঞ্জাব। জবাবে ৫ বল বাকি থাকতে জয় চেন্নাইয়ের। পাঞ্জাব হারায় প্লে অফের লড়াই থেকে ছিটকে যায় তারা। আগের দিনরয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুকে হারানো রাজস্থান রয়্যালস চলে যায় প্লে অফে। কারণ, রাজস্থান রয়্যালসের ১৪ পয়েন্ট, কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের ১২ পয়েন্ট।

গেল আসরের চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এবার শেষ চারেও পৌঁছাতে পারেনি। সাত ম্যাচ পর মুস্তাফিজুর রহমানকে তারা ফিরিয়ে এনেছিল জয়ের জন্য। জিতলেই নিশ্চিত হবে শেষ চার, এই সমীকরণে খেলতে নেমেছিল তারা। তবে, দিল্লির কাছে ১১ রানে হেরে যায় তারা। প্রত্যাবর্তনের ম্যাচটা স্মরণীয় করে রাখতে পারেননি মুস্তাফিজ। চার ওভার বল করে ৩৪ রান করে উইকেটশূন্য ছিলেন তিনি।

 

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ