লংবীচ কাইট ফেস্টিভ্যাল'২০১৮ সম্পন্ন, অসাধারন আয়োজনে মুগ্ধ সকলে

August 17, 2018, 1:15 PM, Hits: 1338

লংবীচ কাইট ফেস্টিভ্যাল'২০১৮ সম্পন্ন, অসাধারন আয়োজনে মুগ্ধ সকলে

হ-বাংলা নিউজ, হলিউড থেকে: বাঙ্গালী জাতির সংস্কৃতি দেশের সীমানা পেরিয়ে এখন সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে।  আর সেটা বুকে ধারন করে আছে লাখো প্রবাসী বাংলাদেশী শিশু- কিশোর, পুরুশ-মহিলাসহ সকল বয়সী বাঙ্গালী জাতি।  ঘুড়ি-লাটাই আর মাঞ্জামারা সুতা যেন বাংলার দামাল তরুন-তরুণী ও সকল বয়সীদের আকর্ষণীয় খেলা।

এমনই এক ঐতিহ্যবাহী ঘুড়ি ও লাটাইয়ের মেলা নিয়ে লংবীচে কাইট ফেস্টিভ্যাল '২০১৮ আয়োজন করে লস্  এঞ্জেলেসের প্রবাসী বাংলাদেশীরা।   গৌরবময় টানা ৫ম বারের মতো লংবীচ কাইট ফেস্টিভ্যাল আয়োজিত হয়। 

আমেরিকায় বসবাসকারী বিভিন্ন জাতির অভিবাসীকে জানান দিলো "আমরা বাঙ্গালী আমাদেরও আছে এক সংস্কৃতি। "

গত ১২ই আগষ্ট রোজ রবিবার প্রশান্ত মহাসাগরের তীরে বিপুল পরিমান বাংলাদেশী শিশু-কিশোর, তরুণ-তরুণী, পুরুশ-মহিলাসহ সকল বয়সীরা মেতে উঠেছিলো ঘুড়ি উড়ানো খেলায়।

সকাল ১১ টা হতেই একে একে অনেকেই স্ব-বান্ধব ও পরিবার নিয়ে আসতে থাকে লংবীচের তীরে।  সকলের চোখে যেন এক আনন্দ-উত্তেজনার ঝলক পরিলক্ষিত হয়।

বেলা বাড়তেই বিপুল পরিমান বাংলাদেশীসহ আমেরিকান আভিবাসীর পদচারনায় মুখোরিত হয়ে উঠে প্রশান্তের তীর ।

ফেইস পেইন্টিংয়ের সময়ে মজাদার হালাল হট ডগ ও সফট্ ড্রিংস পরিবেশন করা হয়।  ছোট ছোট ছেলে-মেয়েরাও খুব আনন্দের সাথে এ মুহুর্তটি উপভোগ করে।   

এরপর মূল অনুষ্ঠানের ফিতা কেটে লংবীচ কাইট ফেস্টিভ্যাল'২০১৮ এর শুভ উদ্ভোধন করেন লংবীচ সিটি মেয়র ড: রবার্ট গারসিয়া, প্রধান অতিথি ডা: আমীর খসরু, চেয়ারম্যান -

 ডা: মোয়াজ্জেম হোসেন, কো- চেয়ারম্যান-শওকত আলম,  আহবায়ক খায়রুজ্জামান মামুন, যুগ্ম আহবায়ক সৈয়দ নাসির উদ্দিন জেবুল,  উপদেষ্টা মন্ডলীর মধ্যে  সাইদ আবেদ নিপু, 

ওমর হাসান, ইশতিয়াক এ চিশতী,  নিজাম ইসলাম, সোহরাব চৌধুরী, ইফতেখার মাহমুদ ও মাহবুব তুহিন। উদ্ভোধনকালে রবার্ট গারসিয়া এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বাংলাদেশীদের উদ্যোগে 

কাইট ফেস্টিভ্যাল এর এমন সুন্দর আয়োজনের ভুয়োসী প্রশংসা করেন এবং তিনি এমন আয়োজন দেখে অত্যন্ত খুশি ব্যক্ত করেন।  তিনি আগামীতে লংবীচ কাইট ফেস্টিভ্যালকে সিটি ইভেন্টের আওতায় নিয়ে আসবেন বলে আশ্বাস দেন এবং আগামী বছর থেকে এ আয়োজনের জন্য ২৫০০ ডলার অনুদান দিবেন বলে আশ্বাস দান করেন।   

উদ্ভোধনের পর উপস্থিত সকলকে লংবীচ কাইট ফেস্টিভ্যালের পক্ষ্য থেকে ফ্রি প্যাকেট লাঞ্চ ও পানিয়  পরিবেশন করা হয়। অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষন ছিলো স্থানীয় শিল্পীদের 

বিরতিহীন গান পরিবেশন ।  সংগীত পরিবেশন করেন শহীদ আলম, আদনান খান, শহীদ আহমেদ মিঠু, শিল্পী রহমান, উর্মি আতহার, ওমর ফারুক, জাহাঙ্গির আলম, লুনা রহমান।সহ 

আরো আনেকে।   সংগিত পরিচালনায় ছিলেন শহীদ আহমেদ মিঠু। মনমুগ্ধকর গানের সুর যেন পুরো পরিবেশকে আরও চাঙ্গা করে তোলে। লাঞ্চের পর পরই শুরু হয় মজার খেলাধুলা ও প্রতিযোগিতা।  ছোট-বড় সকলে এই আকর্ষনীয় প্রতিযোগিতায় মেতে উঠে । চিত্রাংকন প্রতিযোগীতা, রোফ জাম্প, মিউজিক্যাল চেয়ারসহ বিভিন্ন ধরনের খেলাধুলায় অংশগ্রহন করে ।

খেলাধুলা পর্ব শেষ হতে না হতেই প্রশান্তের আকশে যেন বিয়ের সাঁজে সেজে উঠে।   সকলে একসাথে রং বে রঙয়ের ঘুড়ি নিয়ে প্রশান্তের আকাশ ছোঁয়ার প্রতিযোগিতায় নেমে পড়ে। এ এক

অভূতপূর্ব দৃশ্য।প্যাসিফিক ওশান এর আকাশ ছেয়ে যায় রং বে রঙয়ের ঘুড়িতে। একদিক আকাশ রঙ্গিন অন্যদিক থেকে ভেসে আসা গানের সুর ও মিউজিকের ঝংকার এমন পরিবেশে

শিশু-কিশোর, বয়োবৃদ্ধ সকলেই আনন্দে আত্মহারা হয়ে যায় ঘুড়ি উড়িয়ে, ঘুড়ি উড়ানো দৃশ্য দেখে ও গানের মূর্ছনায়।   

সবশেষে শুরু হয় মূল আকর্ষণীয় ইভেন্ট ঘুুড়ি কাটাকাটি প্রতিযোগিতা।  

আঠারো বয়সের উর্ধে তরুণরা এক পাশে মাঞ্জামারা সুতা আর বাহারী রং বে রঙের ঘুড়ি নিয়ে প্রতিযোগীতায় 

অংশগ্রহন করে ।  চরম উত্তেজনা ও হর্ষধ্বনীতে পুরো প্রশান্ত সাগরের তীরের ঢেউও যেন এর সাথে তাল দিয়ে দোল খেতে থাকে।

দিনশেষে সকল খেলাধুলা ও প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরন করা হয়।  একদিকে ঘুড়ি উড়ানো অন্য দিকে ফারহানা আলমের চমৎকার উপস্থাপনা সকলকে তৃপ্ত করে।   

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ