বাংলাদেশ সোসাইটির নির্বাচন : ‘রব-রুহুল’ আর ‘নয়ন-আলী’ প্যানেল মুখোমুখি

September 1, 2018, 3:31 AM, Hits: 972

বাংলাদেশ সোসাইটির নির্বাচন : ‘রব-রুহুল’ আর ‘নয়ন-আলী’ প্যানেল মুখোমুখি

নিউইয়র্ক (ইউএনএ): যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশীদের ‘আম্ব্রেলা সংগঠন’ হিসেবে পরিচিত বাংলাদেশ সোসাইটি ইনক’র আসন্ন দ্বি-বার্ষিক (২০১৯-২০২০) নির্বাচনে সোসাইটির কার্যকরী পরিষদের ১৯টি পদে ৪০জন প্রার্থী মনোনয়পত্র দাখিল করেছেন। এরমধ্যে দুই প্যানেল থেকে ১৯জন করে এবং সভাপতি ও সাধারণ সম্পদক পদে আরো দু’জন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। আর মনোনয়নপত্র দাখিল বাবদ নির্বাচন কমিশনের আয় হয়েছে ৯২ হাজার ৫০০ ডলার। ইসি ঘোষিত নির্বাচনী তফসিল মোতাবেক ২৬ আগষ্ট রোববার সন্ধ্যায় উৎসবমূখর পরিবেশে প্রার্থীরা তাদের মনোনয়নপত্র দখিল করেন। প্রার্থীদের মধ্যে ‘রব-রুহুল’ ও ‘নয়ন-আলী’ দুই প্যানেলের বাইরে সভাপতি পদে সোসাইটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে আব্দুল মোমেন (সোহেল) মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।এছাড়াও সভাপতি পদের জন্য সোসাইটির সাবেক কর্মকর্তা ওসমান চৌধুরী মনোনয়নপত্র ক্রয় করলেও শেষ পর্যন্ত তিনি মনোননয়নপত্র দাখিল না করেননি তবে রোববার তিনি সোসাইটি অফিসে উপস্থিত ছিলেন। এর আগে প্রার্থীরা ১৯টি পদের জন্য ৪৩টি মনোনয়নপত্র ক্রয় করেন। 

এরমধ্যে নয়ন-আলী’ ও ‘রব-রুহুল’ প্যানেল ২০টি মনোনয়নপত্র ক্রয় করে। অপরদিকে স্বতন্ত্র সভাপতি পদপ্রার্থী জয়নাল আবেদীন এবং ওসমান চৌধুরী ১টি করে মনোনয়নপত্র ক্রয় করেন। এছাড়াও স্বাতন্ত্র সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী হিসেবে আবদুল মোমেন সোহেল ১টি মনোনয়নপত্র ক্রয় করেন বলে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সূত্রে জানা যায়। প্রতিটি মনোনয়ন বিক্রি (প্যাকেজ) হয়েছে ৫০০ ডলার করে। ফলে মনোনয়নপত্র বিক্রি করে ইসি’র মোট আয় হয় আরো ২১,৫০০ ডলার। খবর ইউএনএ’র। রব-রুহুল’ প্যানেল থেকে সভাপতি পদে বৃহত্তর নোয়াখালী এসোসিয়েশন ইউএসএ’র সভাপতি (পদত্যাগী) আব্দুর রব মিয়া এবং সাধারণ সম্পাদক পদে সোসাইটির বর্তমান সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমীন সিদ্দিকী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। অপরদিকে ‘নয়ন-আলী’ প্যানেল থেকে সভাপতি পদে চট্টগ্রামের মিরেশ্বরাই সমিতি ইউএসএ’র সভাপতি (পদত্যাগী) কাজী আশরাফ হোসেন নয়ন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে সোসাইটির বর্তমান কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ঘোষিত তফসিল মোতাবেক মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার ৩০ আগষ্ট। চুড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ আগামী ৪ সেপ্টেম্বর এবং নির্বাচন ২১ অক্টোবর।প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীরা তাদের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কর্মকর্তা আর সমর্থকদের নিয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে তাদের মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার এস এম জামাল ইউ আহমেদের নেতৃত্বে নির্বাচন কমিশনের অপর সদস্যরা মনোনয়নপত্র গ্রহণ কাজে তাকে সহায়তা করেন।

নির্বাচন কমিশনের সদস্যরা হলেন মোহাম্মদ আবদুল হাকিম, মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন,রুহুল আমিন সরকার, কায়সার জামান কয়েস ও খোকন মোশারফ,সিটির এলমহার্স্টস্থ সোসাইটি কার্যালয়ে সন্ধ্যা সোয়া ৮টার দিকে প্রথমে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন ‘রব-রুহুল’ প্যানেলের প্রার্থীরা। তারা সভাপতি পদপ্রার্থী আব্দুর রব মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী রুহুল অমীন সিদ্দিকী’র নেতৃত্বে একে একে প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এরপর ‘নয়ন-আলী প্যানেলের প্রার্থীরা সভাপতি পদপ্রার্থী কাজী আশরাফ হোসেন নয়ন এবং সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী মোহাম্মদ আলী’র নেত্বত্বে একে একে প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।মনোনয়নপত্র দাখিলের পর প্রধান নির্বাচন কমিশনার জামাল ইউ আহমেদ এক ব্রিফিং-এ বলেন,নির্বাচনে সোসাইটির কার্যবকরী পরিষদের ১৯টি পদের বিপরীতে ৪০টি মনোনয়নপত্র দাখিল হয়েছে। এরমধ্যে সভাপতি পদে ৩জন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে ৩জন আর অন্যান্য পদে দু’জন করে প্রার্থী রয়েছেন। মনোনয়নপত্র দাখিলের ফি বাবদ নির্বাচন কমিশনের আয় হয়েছে ৯২ হাজার ৫০০ ডলার। তিনি নির্বাচন পরিচালনায় সবার সার্কিক সহযোগিতা কামনা করেন।

মনোনয়নপত্র দাখিলকালে ‘রব-রুহুল’ প্যানেল প্যানেলের নেতৃত্ব দেন কমিউনিটি নেতা আজিমুর রহমান বুরহান, তাজু মিয়া, আব্দুল হাসিম হাসনু, আব্দুল মান্নান প্রমুখ। অপরদিকে ‘নয়ন-আলী’ প্যানেলের নেতৃত্ব দেন কমিউনিটি নেতা আবু নাসের, আলী ইমাম শিকদার, ওয়াসী চৌধুরী, বাবুল চৌধুরী প্রমুখ। মনোনয়নপত্র জমাদানের সময় সোসাইটি কার্যালয়ে প্রার্থী, সমর্থক আর কর্মকর্তাদের পদভার, হৈচৈ আর ব্যাপক কথা-বার্তায় ইসি সদস্যদের বেশ বেগ পোহাতে হয়। এর আগে জামাল আহমেদ জনি সবাইকে শৃংখলার সাথে মনোনয়নপত্র জমাদানের আহ্বান জানান এবং সবার সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন। এসময় সোসাইটির সভাপতি কামাল আহমেদ সহ সোসাইটির অন্যান্য কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।অপরদিকে সভাপতি পদপ্রার্থী জয়নাল আবেদীন ড. আব্দুল বাতেন, শরাফ সরকার, সাইফুল্লাহ ভূইয়া, সাইকুল ইসলাম প্রমুখকে সাথে নিয়ে তার মনোননয়পত্র দাখিল করেন। সাধারণ সম্পাদক পদের অপর প্রার্থী আব্দুল মোমেন (সোহেল) তার সমর্থকদের সাথে নিয়ে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।সোসাইটির আসন্ন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী ‘নয়ন-আলী’ প্যানেলের প্রার্থীরা হলেন: সভাপতিকাজী আশরাফ হোসেন (নয়ন), সিনিয়র সহ সভাপতি- আব্দুর রহীম হাওলাদার, সহ সভাপতি-মোহাম্মদ আর করীম (সাগর), সাধারণ সম্পাদক- মোহাম্মদ আলী, সহ সাধারণ সম্পাদক- মোহাম্মদ দুলাল মিয়া, কোষাধ্যক্ষ- মোহাম্মদ জেড খান (ডিউক), সাংগঠনিক সম্পাদক- আহসান হাবিব, সাংস্কৃতিক সম্পাদক- মনিকা রায়, জন সংযোগ ও প্রচার সম্পাদক- শেখ হায়দার আলী,

সমাজকল্যান সম্পাদক- আবুল কাশেম চৌধুরী, সাহিত্য সম্পাদক- মোহাম্মদ হাসান (জিলানী),ক্রীড়া ও আপ্যায়ন সম্পাদক- মোহাম্মদ এইচ রশীদ (রানা), স্কুল ও শিক্ষা সম্পাদক- মোহাম্মদ এস মিয়া (সামাদ) এবং কার্যকরী সদস্য- জেড আর চৌধুরী, মোহাম্মদ এম আলম, মোহাম্মদ এ সিদ্দিক,সাঈদুর আর খান (ডিউক), আহসান উল্লাহ, (মামুন) ও আলী আকবর।‘রব-রুহুল’ প্যানেলের প্রার্থীরা হলে: সভাপতি- আব্দুর রব মিয়া, সিনিয়র সহ-সভাপতি মহিউদ্দীন দেওয়ান, সহ সভাপতি- আব্দুল খালেক খায়ের, সাধারণ সম্পাদক- রুহুল আমিন সিদ্দিকী, সহ সাধারণ সম্পাদক- মো. আজাদ (বাকির), কোষাধ্যক্ষ- নওশেদ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক-আবুল কালাম ভুঁইয়া, সাংস্কৃতিক সম্পাদক- ডা. শাহনাজ লিপি, জন সংযোগ ও প্রচার সম্পাদকরিজু মোহাম্মদ, সমাজকল্যাণ সম্পাদক- মোহাম্মদ টিপু খান, সাহিত্য সম্পাদক- ফয়সল আহমদ,ক্রীড়া ও আপ্যায়ন সম্পাদক- মাইনুল উদ্দিন মাহবুব, স্কুল ও শিক্ষা সম্পাদক- প্রদীপ ভট্টাচার্য,কার্যকরী সদস্য- মোঃ সাদী মিন্টু, ফারহানা চৌধুরী, শাহ মিজান, আবুল বাশার, আক্তার হোসেন বাবুল ও সুশান্ত দত্ত।উল্লেখ্য, এবারের নির্বাচনে ভোটার সংখ্যা ২৭,৫১৩। যা রেকর্ড ভোটার। এরমধ্যে ৪৮৮ জন আজীবন সদস্য/ভোটার রয়েছেন। সাধারণ ভোটার হচ্ছে ২৭,০২৫ জন। সোসাইটির ইতিহাসে এতো সংখ্যক সদস্য/ভোটার হওয়ার নজির নেই।

 

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ