সম্মেলনের দাবিতে যুক্তরাষ্ট্র আ.লীগের নেতা-কর্মীরা রাজপথে

September 3, 2018, 5:15 AM, Hits: 1224

সম্মেলনের দাবিতে যুক্তরাষ্ট্র আ.লীগের নেতা-কর্মীরা রাজপথে

হ-বাংলা নিউজ :  সম্মেলনের দাবিতে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা এবারে রাজপথে নেমেছেন। তাঁরা সাত বছরের পুরোনো কমিটি বাতিল করার দাবি জানিয়েছেন।

২ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের ডাইভার্সিটি প্লাজায় নানা রঙের পোস্টার-ব্যানার নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ এবং আওয়ামী পরিবারের ব্যানারে শোভাযাত্রা-সমাবেশ হয়।

চাটুকার, মতলববাজ ও দলীয় পরিচয়ে ব্যবসা-বাণিজ্যের সুবিধা গ্রহণকারীদের হাত থেকে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগকে রক্ষা করার দাবি জানানো হয় সমাবেশ থেকে।Eprothomalo

সমাবেশে বলা হয়, একটি কুচক্রী মহল দলীয় নেত্রীর নির্দেশ উপেক্ষা করে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কমিটিকে কুক্ষিগত করে রেখেছে। ২০১১ সালের পর থেকে এখানে দলের কোনো কমিটি নেই। ব্যক্তির নির্দেশ আর সুবিধায় দল চলছে।

হতাশ ও ক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা মনে করেন, বাংলাদেশের আগামী জাতীয় নির্বাচনে আমেরিকাপ্রবাসীরা দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবেন। এ জন্য সম্মেলন হওয়া জরুরি।Eprothomalo

সভায় বেশ কিছু নেতা-কর্মী যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতির সমালোচনা করে বক্তব্য দেন।

জাতিসংঘের ৭৩তম অধিবেশনে যোগ দিতে ২৩ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্ক এসে পৌঁছাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ জন্য তাঁকে আগাম স্বাগত জানানো হয় সমাবেশ থেকে।

বক্তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিউইয়র্ক সফর নির্বিঘ্ন করার জন্য, বিএনপি-জামাতের সব অপতৎপরতা রুখে দেওয়ার জন্য তাঁরা সর্বাত্মক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছেন।

শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেত্রী উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী ও দলকে বিভ্রান্ত করে যারা ফায়দা হাসিল করে আসছে, তাদের প্রতিহত করতে হবে।

জাতিসংঘের অধিবেশনে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ জন্য তাঁকে আগাম স্বাগত জানানো হয় সমাবেশ থেকে। ছবি: প্রথম আলো

জাতিসংঘের অধিবেশনে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ জন্য তাঁকে আগাম স্বাগত জানানো হয় সমাবেশ থেকে। ছবি: প্রথম আলো

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতারা জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রীর আগমন পর্যন্ত প্রতি সপ্তাহান্তে তাঁরা এমন সভা-সমাবেশ করবেন। কমিটির দাবির পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে তাঁরা রাজপথেই থাকবেন।

২৩ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ প্রধানমন্ত্রীকে গণসংবর্ধনা দেবে। ম্যানহাটনের সিক্সথ অ্যাভিনিউয়ের হিলটন হোটেলের গ্র্যান্ড বলরুমে এই সংবর্ধনার আয়োজন করা হচ্ছে। সংবর্ধনায় যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্য ও কানাডা থেকে হাজারো প্রবাসী অংশ নেবেন।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৩তম অধিবেশন শুরু হবে ১৮ সেপ্টেম্বর। ২৭ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘে ভাষণ দিতে পারেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২৮ সেপ্টেম্বর লন্ডনের উদ্দেশে তিনি নিউইয়র্ক ত্যাগ করতে পারেন। তার আগে বিভিন্ন সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের প্রস্তুতি নিচ্ছে জাতিসংঘে বাংলাদেশ মিশন। 

নিউইয়র্ক সফরকালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বৈঠক হবে। পর্যবেক্ষক মহল এই বৈঠককে তাৎপর্যপূর্ণ বলে বর্ণনা করেছেন। নিউইয়র্কে অবস্থানকালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উদ্যোগে বিভিন্ন সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানের সম্মানে আয়োজিত সংবর্ধনা ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী আরও অনেকগুলো দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন বলে জানা গেছে।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘২৩ সেপ্টেম্বরের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রবাসীদের উদ্দেশে বাংলাদেশ নিয়ে তাঁর ভিশন তুলে ধরবেন। তিনি বাংলাদেশকে কোথায় নিয়ে যেতে চান, আমরা সেটা তাঁর কণ্ঠেই শুনব। এ জন্য উদ্‌গ্রীব হয়ে আছেন প্রবাসীরা।’

জ্যাকসন হাইটসের সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন আব্দুস শহীদ দুদু। সভা পরিচালনা করেন কয়েছ আহমেদ। বক্তব্য দেন প্রদীপ কর, তোফায়েল চৌধুরী, হাঁকিকুল ইসলাম, আব্দুর রহিম বাদশাহ, চন্দন দত্ত, শাহ বখতিয়ার, সাজু আহমেদ, কায়কোবাদ খান, শরীফ কামরুল হীরা, গোলাম রব্বানী, আসুক মাশুক, ইলিয়াস রহমান, রেজাউল করিম, জেসমিন বোখারি, রুমানা আক্তার, দুরুদ মিয়া রুনেল, নাসিফ তোরন প্রমুখ। 

 
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ