রাজাবিহীন বাংলাদেশে আসছে জিম্বাবুয়ে

September 13, 2018, 10:10 AM, Hits: 240

 রাজাবিহীন বাংলাদেশে আসছে জিম্বাবুয়ে

হ-বাংলা নিউজ : অর্থাভাবে জর্জরিত জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট (জেডসি) বকেয়া বেতন দিতে পারছিল না। প্রতিবাদে ব্রেন্ডন টেলর, ক্রেগ আরভিন, শন উইলিয়ামস, সিকান্দার রাজা আর গ্রায়েম ক্রেমার নিজেদের গুটিয়ে নিলেন। দল থেকে স্বেচ্ছা নির্বাসন নিয়েছিলেন তাঁরা। ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া আর পাকিস্তানের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজে খেলেননি। খেলেননি পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজেও।

আইসিসি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ায় জেডসির অর্থকষ্ট কিছুটা হলেও দূর হয়েছে। আগামী মাসে তিন ওয়ানডে ও দুই টেস্টের সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ সফরে আসছে জিম্বাবুয়ে। নির্বাসন কাটিয়ে সেই দলে ফিরেছেন টেলর, আরভিন ও উইলিয়ামস। তবে দলে নেই স্বেচ্ছা নির্বাসনে যাওয়া পাঁচজনের বাকি দুজন। ক্রেমারের না থাকার কারণ চোট; হাঁটুর অস্ত্রোপচারের ধকল এখনো কাটিয়ে উঠতে পারেননি এই অলরাউন্ডার।

রাজার ক্ষেত্রে অবশ্য চোট নয়, সাম্প্রতিক সময়ে জিম্বাবুয়ের ব্যাটিং-স্তম্ভকে দল থেকে বাদ দিয়েছেন নির্বাচকেরা। খরচ কমাতে জেডসি বোর্ড কর্মকর্তা আর খেলোয়াড়দের অনেকের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেছে সম্প্রতি। রাজা তাঁদের একজন। অনেকের ধারণা, কেন্দ্রীয় চুক্তিতে না থাকায় রাজাকে দলে রাখেননি নির্বাচকেরা। কিন্তু বোর্ডের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে না থাকলেও ক্রিকেটারদের দলে থাকতে আসলে বাধা নেই। আর জিম্বাবুয়ের বর্তমান দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি দেখা যায় রাজাকেই। অথচ তিনিই নেই জিম্বাবুয়ের বাংলাদেশ সফরে!

রাজা নেই শুনে বাংলাদেশের বোলাররা হয়তো একটু স্বস্তিই পাবেন। অন্তত টেস্ট সিরিজে। জিম্বাবুয়ের হয়ে সর্বশেষ চার টেস্টে রাজার রান ৪৬.৬২ গড়ে ৩৭৩। এর মধ্যে আছে কলম্বোতে গত বছরের জুলাইয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে একটি সেঞ্চুরি আর নভেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বুলাওয়েতে দ্বিতীয় টেস্টের দুই ইনিংসেই ফিফটি। বাংলাদেশের বিপক্ষে রাজা টেস্ট খেলেছেন তিনটি। ৪০.৫০ গড়ে ৩ ফিফটিতে রান করেছেন ২৪৩। ওয়ানডেতে অবশ্য বাংলাদেশের বিপক্ষে রাজার রেকর্ড অতটা সমৃদ্ধ নয়। ১১ ওয়ানডেতে ২১.৭২ গড়ে ২৩৯ রান। সেঞ্চুরি নেই, ক্যারিয়ারের ১৩ ফিফটির একটিই শুধু বাংলাদেশের বিপক্ষে।

বাংলাদেশ সফরের আগে দক্ষিণ আফ্রিকা যাবে জিম্বাবুয়ে। সেখানে তারা খেলবে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি। দুটি সিরিজের জন্যই অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। এই ওপেনার যেমন তাঁর নেতৃত্ব ফিরে পেয়েছেন, তেমনি দলে জায়গা ফিরে পেয়েছেন অলরাউন্ডার সলোমান মায়ার ও পেসার কাইল জারভিস। দুজনই চোটের কারণে ছিলেন দলের বাইরে। জিম্বাবুয়ের এবারের বাংলাদেশ সফরটা সবচেয়ে বড় পরীক্ষা হয়ে আসছে লালচান রাজপুতের জন্য। জিম্বাবুয়ের কোচ হিসেবে এটাই প্রথম অভিযান ভারতীয় কোচের।

৩ ওয়ানডে, ২ টেস্ট খেলতে ১৬ অক্টোবর ঢাকায় পৌঁছাবে জিম্বাবুয়ে। ২১ অক্টোবর মিরপুরে প্রথম ওয়ানডে, ২৪ ও ২৬ অক্টোবর চট্টগ্রামে সিরিজের বাকি দুই ওয়ানডে। ৩ নভেম্বর সিলেটে শুরু সিরিজের প্রথম টেস্ট। জিম্বাবুয়ের বাংলাদেশ সফর শেষ ১১ নভেম্বর শুরু ঢাকা টেস্ট দিয়ে। 

 
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ