তামিমের বিকল্প কে?

September 17, 2018, 1:17 PM, Hits: 186

তামিমের বিকল্প কে?

হ-বাংলা নিউজ : তামিম ইকবাল ছিটকে পড়েছেন এশিয়া কাপের আসর থেকে। জানা গেছে, ইনজুরির কারণে তার মাঠে ফিরতেই লাগবে লম্বা সময়। তাই প্রশ্ন টাইগারদের দ্বিতীয় ম্যাচে কে হবেন তামিমের বিকল্প! আফগানদের বিপক্ষে ওপেনিংয়ে দলের দায়িত্ব সামলাবেন কে? এ নিয়ে টাইগার ক্রিকেটের ভক্তদের মধ্যেও জল্পনা-কল্পনার শেষ নেই। যতটা জানা গেছে, নতুন কোনো ক্রিকেটার এশিয়া কাপের দলে ডাকছেন না নির্বাচকরা। যে কারণে মোহাম্মদ মিঠুন কিংবা মুমিনুল হক সৌরভকে দেখা যেতে পারেন ওপেনিংয়ে নামতে। প্রথম ম্যাচেও তার ইনজুরির কারণে মুমিনুলের নামই শোনা যাচ্ছিল লিটন কুমার দাসের সঙ্গে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ইনজুরি নিয়ে মাঠে নেমেছিলেন তামিমই। কিন্তু ভাগ্য তার সঙ্গী হননি।

লাকমলের বল তার হাতের আঙুলের লেগে চিড় ধরে। যদিও সবাইকে অবাক করে শেষ দিকে দলের প্রয়োজনে এক হাতে ব্যাট করতে নেমেছিলেন। তবে এ আসরে আর তিনি খেলতে পারছে না। ইনজুরি নিয়ে আজই দেশে ফিরে আসছেন তিনি। আগামীকাল আফগানদের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নামবে দল। সেখানে ওপেনিং করতে প্রস্তুত প্রথম ম্যাচে ৬৩ রানের দারুণ ইনিংস খেলা মোহাম্মদ মিঠুন। গতকাল সংবাদ মাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘দলের প্রয়োজনে আমি যে কোনো পজিশনে খেলতে রাজি। তামিমের পরিবর্তে ওপেনিংয়ে খেলতেও আপত্তি নেই আমার।’ 

এশিয়া কাপের জন্য শুরুতে ঘোষণা করা হয়েছিল ১৫ সদস্যের দল। কিন্তু সাকিব আল হাসান, পরে তামিম ইকবাল ইনজুরিতে থাকায় মুমিনুল হক সৌরভকে দলে নেয়া হয়। কিন্তু হঠাৎ করে মুুমিনুলকে কি দায়িত্ব দেয়া হবে! যাকে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলানো নিয়ে আছে নানা বিতর্ক। কারণ শুরু থেকেই তাকে ধরা হয় টেস্ট স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যান হিসেবে। বিশেষ করে ২০১৪ থেকে চন্ডিকা হাথুরুসিংহে প্রধান কোচের দায়িত্ব নেয়ার পর মুমিনুলের ওয়ানডে খেলা প্রায় বন্ধই হয়ে যায়। সব শেষ তিনি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছে ২০১৫ তে। প্রথম ম্যাচ জিতে টাইগাররা সুবিধাজনক অবস্থাতে থাকায় হয়তো মুমিনুলকেই ওপেন করতে পাঠাতে পারে দল। অন্যদিকে মিঠুন প্রথম ম্যাচে মিডল অর্ডারে খেলেছেন বেশ দায়িত্ব নিয়ে। ১ রানে দুই উইকেট পতনের পর ইনজুরি আক্রান্ত হয়ে বিদায় নিয়েছিলেন তামিম। এরপর মুশফিকুর রহীমকে নিয়ে গড়ে তোলেন ১৩১ রানের জুটি। যেখানে তার অবদান ৬৩ রানের। মিডল অর্ডারে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটসম্যান সাকিব আল হাসান ও মুশফিক দু’জনই আছেন ইনজুরিতে। তাই মিঠুনকে সেখান থেকে সরিয়ে দল নতুন ভাবে ঝুঁকি নিতে চাইবে না। অন্যদিকে লিটন দাসের পারফরম্যান্স আলোর মুখ দেখেনি ওয়ানডে ক্রিকেটে। ১৩ ম্যাচে সুযোগ পেলেও করেছেন ১৬৫ রান। যেখানে তার ব্যাট থেকে সর্বোচ্চ এসেছে ৩৬ রান। শেষ ম্যাচে শূন্য রানেই ফিরে দলকে ফেলেছিলেন দারুণ বিপদে। তাই ওপেনিংয়ে শেষ পর্যন্ত মুমিনুলের মতো স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যানকে মাঠে নামাতে পারে টিম ম্যানেজমেন্ট। 

তামিম না থাকায় একাদশে পরিবর্তন আসবে সেটি বলার অপেক্ষা রাখেনা। ওপেনিংয়ে লিটন ও মুমিনুল খেললে পরে দায়িত্ব সামলাতে আসবেন সাকিব, মুশফিক, মিঠুন, মাহমুদুল্লাহ। তবে প্রথম ম্যাচে ব্যর্থ তরুণ মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে নিয়ে থাকছে প্রশ্ন! টিম ম্যানেজমেন্ট তাকে আরেকটি সুযোগ দিয়ে দেখবেন কিনা সেটিও প্রশ্ন। তবে আফগানিস্তান বলে আরো একটি সুযোগ আসতে পারে তার। সেই ক্ষেত্রে নিজেকে প্রমাণ করার চাপ ও চ্যালেঞ্জ নিয়ে মোসাদ্দেককে মাঠে নামতে হবে। আর তার উপর ভরসা না রাখলে কপাল খুলতে পারে আরিফুল হকের। এই অল রাউন্ডারকে হয়তো দেখা যাবে লেজের দায়িত্ব সামলাতে। 

প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ১৩৭ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। সেই সুবাদে ‘বি’ গ্রুপে ২ পয়েন্ট নিয়ে টাইগাররা রয়েছে শীর্ষে। বলতে গেলে দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলা তাদের এখন অনেকটাই নিশ্চিত। তবে প্রথম রাউন্ডে শেষ ম্যাচে আফগানদের চ্যালেঞ্জও সহজ হবে না বলে মনে করেন ক্রিকেট বোদ্ধারা। যদিও কোচ নাজমুল আবেদিন ফাহিম মনে করেন আফগানদের ভয় পাওয়ার তেমন কিছুই নেই। তিনি বলেন, ‘কারণ টি-টোয়েন্টিতে আফগানরা শক্তিশালী হলেও ওয়ানডেতে বাংলাদেশ কম নয়। এখানে একটু বুঝে খেললেই আমাদের ভয় পাওয়ার কিছু নেই।’ 

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ