ঢাকায় দিনব্যাপী ম্যাজিক ওয়ার্কশপ করে এলেন যাদুশিল্পী খান শওকত

October 16, 2018, 8:27 AM, Hits: 201

ঢাকায় দিনব্যাপী ম্যাজিক ওয়ার্কশপ করে এলেন যাদুশিল্পী খান শওকত

১৯৮১ সালে যাদু বিদ্যায় হাতেঘড়ি নেন খান শওকত। ১৯৮৫ সালে যাদু প্রদর্শনী করে তার আত্ম প্রকাশ। ৮৬ সালে বাংলাদেশ যাদুকর পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটিতে নির্বাহী সদস্য নির্বাচিত হন। ৮৭ সালে আমেরিকাস্থ পৃথিবীর সর্ববৃহৎ যাদু সংগঠন আই.বি.এম. এর বাংলাদেশ শাখা (রিং-২৭৯) গঠন করেন। ঢাকার ১ম যাদুশিক্ষা প্রতিষ্ঠান (মডার্ন ম্যাজিক একাডেমী, শান্তিনগর চৌরাস্তা) গড়ে তোলেন ১৯৮৫ সালে। ১৯৯০ সাল থেকে নিউইয়র্ক প্রবাসী। তিনি আই.এম.এস থেকে ডঃ অব ম্যাজিক অর্জন করেন ২০০২ সালে এবং ম্যাজিকের অস্কার খ্যাত মারলিন এ্যাওয়ার্ড পান ২০১৩ সালে। বাংলাদেশের ম্যাজিকের অঙ্গনে তার একটি অবস্থান আছে।

শিল্পের অন্য সকল বিষয় নিয়ে দিনব্যাপী ওয়ার্কশপের প্রচলন থাকলেও ম্যাজিক ওয়ার্কশপ এর উদ্যোগ তেমন একটা নেয়া হচ্ছিলোনা বাংলাদেশে। এ বিষয়ে খান শওকত প্রস্তাব তুললে সকল যাদুশিল্পীরা আগ্রহ প্রকাশ করেন। বাংলাদেশের প্রায় সকল জেলার যাদুশিল্পীদের নিয়ে গত ৯/৯/২০১৮ তারিখে ঢাকায় জাতীয় পাবলিক লাইব্রেরী মিলনায়তনে জুপিটার ম্যাজিক ইন্টারন্যাশনালের ব্যানারে তিনি আয়োজন করেন দিনব্যাপী ম্যাজিক ওয়ার্কশপের। 

এই ওয়ার্কশপে মূলতঃ আন্তজার্তিক অঙ্গনে বাংলাদেশের ম্যাজিককে তুলে ধরার বিষয়গুলো ছাড়াও ক্লোজ আপ ম্যাজিক, কনজ্যুরিং ম্যাজিক, ইলুশান ম্যাজিক, স্টেজ ম্যাজিক, চিলড্রেন ম্যাজিক, প্রতিবন্ধীদের জন্য ম্যাজিক, চিকিৎসা সন্মোহন সহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। সারাদেশ থেকে আসা যাদুশিল্পীদের জন্য আয়োজিত এ ওয়ার্কশপে প্রশিক্ষক হিসেবে অংশগ্রহণ করেন প্রবীন যাদুশিল্পী মাইনুল খান, সজ্জন যাদুশিল্পী উলফাৎ কবির, শিশুবন্ধু শাহীন শাহ, চট্টগ্রামের কৃতি যাদুশিল্পী রাজীব বশাক, কমেডি ম্যাজিশিয়ান প্রিন্স আলমগীর এবং খান শওকত। 

প্রশিক্ষণ শেষে বিশ্বনন্দিত যাদুশিল্পী জুয়েল আইচের সাথে ছিলো মনোরম আড্ডা ও প্রশ্নত্তর পর্ব। সবশেষে প্রধান অতিথি যাদুশিল্পী জুয়েল আইচ অংশগ্রহণকারী সকলের হাতে সনদপত্র তুলে দেন। ওয়ার্কশপ উপলক্ষে একটি চমৎকার স্মরনিকাও প্রকাশ করা হয়। অংশগ্রহণকারী প্রত্যেকেই এই ভিন্নধর্মী ওয়ার্কশপের ভ‚য়শী প্রশংসা করেন। 

 

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ