সবচেয়ে দামি ১০ স্মার্টফোন

October 30, 2018, 10:31 PM, Hits: 147

 সবচেয়ে দামি ১০ স্মার্টফোন

হ-বাংলা নিউজ : আগে মানুষ এক লাখ টাকা দামের মোবাইল ফোনের কথা শুনলেই চোখ কপালে তুলত। এখন দামি স্মার্টফোন অনেকের কাছে ফ্যাশন হয়ে দাঁড়িয়েছে। স্মার্টফোন নির্মাতারা দামি ফোন তৈরির দিকে ছুটছে। মার্কিন প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা অ্যাপল সম্প্রতি ৫১২ জিবি স্টোরেজের আইফোন এক্সএস ম্যাক্স ফোনটিকে দামি ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন হিসেবে বাজারে ছেড়েছে।

অ্যাপলকে টেক্কা দিতে চীনের স্মার্টফোন নির্মাতা হুয়াওয়ে মেট ২০ পোরশে ডিজাইন বাজারে এনেছে। এ দুটি নতুন ফোন ছাড়াও দামি ফোনের আরও কয়েকটি মডেলে বাজারে রয়েছে। জেনে নিন ১০টি দামি স্মার্টফোন সম্পর্কে:

আইফোন এক্সএস ম্যাক্স 

এ বছর অ্যাপল বাজারে ছেড়েছে তাদের সবচেয়ে দামি আইফোনের মডেল। আইফোন এক্সএস ম্যাক্স ৫১২ জিবি মডেলের ফোনটির দাম ১ হাজার ৪৪৯ মার্কিন ডলার বা প্রায় ১ লাখ ২৩ হাজার টাকা। গ্রাহকদের কাছে ৬ দশমিক ৫ ইঞ্চি ডিসপ্লের আইফোন এক্সএস ম্যাক্সের চাহিদা সবচেয়ে বেশি। ১২ সেপ্টেম্বর অ্যাপল একযোগে নতুন তিনটি আইফোন উন্মোচন করেছে। ডিভাইস তিনটি হচ্ছে, আইফোন এক্সএস, আইফোন এক্সএস ম্যাক্স ও আইফোন এক্সআর। 

বাজার বিশ্লেষক মিং-চি কুয়োর তথ্যমতে, আইফোন এক্সএসের চেয়ে আইফোন এক্সএস ম্যাক্স তিন থেকে চার গুণ বেশি বিক্রি হয়েছে, যা প্রতিষ্ঠানটির প্রত্যাশার চেয়েও বেশি। আইফোনের নতুন তিন সংস্করণের মধ্যে সবচেয়ে বেশি দামের ডিভাইস হচ্ছে আইফোন এক্সএস ম্যাক্স। ডুয়াল সিম সুবিধা–সংবলিত ডিভাইসটিতে ১২ মেগাপিক্সেলের ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা এবং ৭ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরা আছে।

ভার্চু অ্যাস্টার পি গোল্ড

ভার্চু দেড় বছর পর অ্যাস্টার পি গোল্ড স্মার্টফোন দিয়ে বাজারে ফিরছে। ফোনটির দাম শুরু হচ্ছে ৪ লাখ টাকা থেকে। তবে এর সোনার প্রলেপ দেওয়া বিশেষ সংস্করণের দাম হবে প্রায় ১২ লাখ টাকা (১৪ হাজার ১৪৬ মার্কিন ডলার)। প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট অ্যান্ড্রয়েড সেন্ট্রাল বলছে, ফোনটি ভার্চুর হাতে তৈরি (হ্যান্ডমেড) ফোনের বিশেষ সংস্করণ, যাতে টাইটানিয়াম ফ্রেম ব্যবহৃত হয়েছে। এর ডিসপ্লেতে ১৩৩ ক্যারেট স্যাফায়ার ক্রিস্টাল গ্লাস প্যানেল রয়েছে। যাঁরা ফোনটি কিনবেন, তাঁরা এতে অ্যাক্সেসরিজ হিসেবে গিরগিটির বা কুমিরের চামড়া বেছে নেওয়ার সুযোগ পাবেন। ফোনটিতে ৪ দশমিক ৯ ইঞ্চি মাপের অ্যামোলেড ডিসপ্লে, স্ন্যাপড্রাগন ৬৬০ প্রসেসর, ৬ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ থাকছে। অ্যান্ড্রয়েড ৮ দশমিক ১ ওরিও সংস্করণের ফোনটির ব্যাটারি হবে ৩ হাজার ২০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার আওয়ার। এতে কুইকচার্জ ৩ দশমিক শূন্য প্রযুক্তি সমর্থন করে। এতে ইউএসবি-সি পোর্ট, এনএফসি, ব্লুটুথ ৫ দশমিক শূন্য, ডুয়েল ব্যান্ড ওয়াই-ফাই সুবিধা থাকবে।

হুয়াওয়ে মেট ২০ আরএস পোরশে ডিজাইন

অ্যাপলকে টেক্কা দিতে চীনের প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা হুয়াওয়ে যুক্তরাজ্যের লন্ডনের এক অনুষ্ঠানে এ বছরের সবচেয়ে দামি অ্যান্ড্রয়েডচালিত স্মার্টফোন উদ্বোধন করেছে। ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন হিসেবে বাজারে ছাড়া পোরশে ডিজাইন হুয়াওয়ে মেট ২০ আরএস বিশেষ সংস্করণের ফোন। এর দাম প্রায় ১ লাখ ৬৭ হাজার টাকা (১ হাজার ৬৯৫ ইউরো)। পোরশে ডিজাইন হুয়াওয়ে মেট ২০ আরএস ফোনটিতে ৮ জিবি র‍্যাম, ২৫৬ জিবি স্টোরেজ থাকছে। অ্যান্ড্রয়েডনির্ভর হুয়াওয়ে মেট ২০ স্মার্টফোনটির বিশেষত্ব হচ্ছে এর নকশা। ফোনটি তৈরিতে জার্মানির প্রতিষ্ঠান পোরশে ডিজাইনের সঙ্গে চুক্তি করেছে হুয়াওয়ে। ফোনটির পেছনে কালো গ্লাস ও চামড়া (টেক্সচারড লেদার) ব্যবহার করা হয়েছে। ওই চামড়া লাল ও কালো রঙে পাওয়া যাবে।

ক্যাভিয়ার আইফোন এক্সএস ম্যাক্স

ক্যাভিয়ার আইফোন এক্সএস সিরিজে স্মার্টফোনের একদিকে ফোন ও অন্যদিকে মেকানিক্যাল ওয়াচ রয়েছে। এর কাঠামো তৈরিতে টাইটানিয়াম ও সোনার প্রলেপ ব্যবহার করা হয়েছে। ফোনটির কালো বা সোনালি রঙের সংস্করণের দাম পড়বে ৬ হাজার ৩২০ মার্কিন ডলার বা প্রায় ৫ লাখ ৩৬ হাজার টাকা।

দ্য ডায়মন্ড ক্রিপ্টো

ডায়মন্ড ক্রিপ্টো বিশ্বের ব্যয়বহুল ফোনের মধ্যে একটি। যাঁরা নিরাপত্তার বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বসহকারে দেখেন, তাঁদের জন্য এই ফোন। কিন্তু এখনো যেসব ধনী ব্যক্তি নিরাপদভাবে সংযোগ বিচ্ছিন্ন রাখতে চান শুধু এনক্রিপ্টেড ভয়েস এবং এসএমএস যোগাযোগের ওপর নির্ভর করে থাকতে চান, তাঁদের জন্যই এই ফোন। এই ফোনের দাম ১৩ লাখ ডলার।

ভিআইপিএন ব্ল্যাক ডায়মন্ড

ভিআইপিএন ব্ল্যাক ডায়মন্ড ফোনের দাম ৩ লাখ মার্কিন ডলার। এই ফোনের মাত্র ৫ ইউনিট উৎপাদন হয়েছে। তবে এই ফোনের মালিক কারা, তা এখনো কেউ জানেন না।

স্যাভিলি শ্যাম্পেইন ডায়মন্ড

এই ফোনের উপাদান ও ডিজাইনের কারণে ব্যয়বহুল এই ফোন। এই ফোনের দাম প্রায় ৫৭ হাজার মার্কিন ডলার। এই ফোনে আছে ১৮ ক্যারেট গোল্ড শেল সঙ্গে ৩৯৫ সাদা ও কনিয়াক ডায়মন্ড। অ্যান্ড্রয়েডচালিত ফোনটিতে কাস্টমাইজড সুবিধা রয়েছে।

গোল্ডভিশ একলিপ্স

গোল্ডভিশ একলিপ্স ফোনের দাম ৭ হাজার ৬৬৮ ডলার। দামি মেটাল ও লেদারে তৈরি এই ফোন। কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসর ও অ্যান্ড্রয়েড ওএস রয়েছে এই ফোনে। অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমচালিত ফোনটি আঁচড় প্রতিরোধী টাচস্ক্রিন, কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসর রয়েছে। এ ফোনটির ম্যাজিক অনিক্স অ্যালিগেটর সংস্করণের দাম ৭ হাজার ৯৬৫ ডলার। ফোনে কালো কুমিরের চামড়ার কারণে এটি ব্যয়বহুল।

সিরিন সোলারিন

বিশ্বের দামি স্মার্টফোনগুলোর একটি হচ্ছে, ইসরায়েলের স্টার্টআপ সোলারিনের প্রাইভেসিকে গুরুত্ব দিয়ে তৈরি সিরিন সোলারিন ফোনটি। অ্যান্ড্রয়েডচালিত ফোনটির দাম ১৪ হাজার মার্কিন ডলার। সোলারিন পানি ও ধুলাবালি প্রতিরোধী।

অপো ফাইন্ড এক্স ল্যাম্বরগিনি এডিশন

চীনের স্মার্টফোন নির্মাতা অপো তাদের সবচেয়ে দামি ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন উন্মুক্ত করেছে। অপো ফাইন্ড এক্স স্মার্টফোনটির পেছনের প্যানেল কাচের আর ল্যাম্বরগিনি লিমিটেড এডিশনের ক্ষেত্রে পেছনের প্যানেলে ক্ল্যাসিক কার্বন টেক্সচার ও থ্রিডি ল্যাম্বরগিনি গাড়ির লোগো ব্যবহার করা হয়েছে। ল্যাম্বরগিনি লিমিটেড এডিশনটি ৫১২ জিবি মডেলে পাওয়া যাবে। এর দাম ১ হাজার ৬৯৯ ইউরো। স্মার্টফোনটি প্রায় বেজেলহীন এবং স্ক্রিন থেকে বডির রেশিও ৯৩ দশমিক ৮ শতাংশ। স্মার্টফোনটিতে ৬ দশমিক ৪ ইঞ্চি মাপের ওএলইডি এইচডি প্লাস ডিসপ্লে ও গরিলা গ্লাস প্রযুক্তি। 

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ