বাংলাদেশ হেরিটেজ সোসাইটি বন্ধের হুমকি কানাডার কোর্ট অব কুইন বেঞ্চে মামলা দায়ের

November 6, 2018, 11:51 PM, Hits: 411

বাংলাদেশ হেরিটেজ সোসাইটি বন্ধের হুমকি কানাডার কোর্ট অব কুইন বেঞ্চে মামলা দায়ের

হ বাংলা নিউজ : এডমন্টন ৬ নবেম্ভর: আজ বাংলাদেশ কানাডা হেরিটেজ সোসাইটি অব এডমন্টনকে  বন্ধ করার হুমকি  ও নানাহ দৃশ্যমান চক্রান্তে জড়িত থাকার অভিযোগে বাংলাদেশ কানাডা এসোসিয়েশন অব এডমন্টন (বিসিএই) এর তিন কর্মকর্তা শহীদুল ইসলাম, ফিরোজ আলী, ও এইচ. এম. আশরাফ আলী’র বিরুদ্ধে  কোর্ট অব কুইন বেঞ্চ অব আলবার্টা, কানাডায় (মামলা# ১৮০৩ ২২০৬৭) হেরিটেজ সোসাইটির সভাপতি মাসুদ ভুইয়া অর্ধ্ব মিলিয়ন ডলারের ক্ষতিপূরণ মামলা  দায়ের করেছেন।

মামলার বিবাদীগণ পরস্পর যোগসাজসে বাংলাদেশ কানাডা হেরিটেজ সোসাইটি অব এডমন্টনের ক্ষতি সাধন তথা কমিউনিটিতে  বিভাজন সৃষ্টির হীণ প্রচেষ্টায় লিপ্ত। যদিও গত চার-পাচ বছর ধরে উভয় সংগঠনের সদস্যপদ উন্মুক্ত করা সহ পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধির জন্য কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ বেশ কয়েক দফা আলাপ-আলোচনা করেন এবং  দুই সংগঠনের দূরত্বকে অনেকটা শুন্যের কোঠায় নামিয়ে এনেছিলেন। তা সত্বেও কায়েমী স্বার্থান্বেষীরা তা ধুলিস্যাৎ করে কমিউনিটিতে আবারো উত্তেজনা সৃষ্টি করেছে বলে বাদী আদালতে তথ্য-প্রমান দাখিল করতঃ প্রতিকার প্রার্থনা করেছেন।

ড. মানস সৌমের অধীন অনুষ্ঠিত  স্পেশাল প্রজেক্ট কমিটির বিগত নির্বাচনে হেরিটেজ সোসাইটির সাবেক সভাপতি বিনা  প্রতিদ্বন্ধিতায় তিন বছরের জন্য চেয়ারপার্সন  নির্বাচিত  হন এবং এ ঐক্য প্রক্রিয়ার অন্যতম উদ্যোগতা ম. লস্কর ২০১৮ সালের জন্য ডাঃ আলীর অধীন অনুষ্ঠিত  নির্বাহী পরিষদ নির্বাচনে  দ্বিতীয়বারের মতো  বিনা  প্রতিদ্বন্ধিতায় বাংলাদেশ কানাডা এসোসিয়েশন অব এডমন্টন (বিসিএই) এর সভাপতি নির্বাচিত হলে গভীর ষড়যন্ত্রের সূত্রপাত হয়।

বিবাদীদের  সাংগঠনিক বিষয়ে অজ্ঞতা ও কর্মকান্ডে অস্বচ্ছতার কারনে বাংলাদেশ কানাডা  এসোসিয়েশনের  গতবছর অর্থাৎ ২৪ ডিসেম্বর ২০১৭ থেকে আহুত তিনতিনটি  বিশেষ সাধারন সভার কোনটাই কার্য্যকর ও সফল  হয়নি বরং সর্বশেষ ৩০শে সেপ্টেম্বর  আয়োজিত  এক ম্যাগা-শো এর আড়ালে  বিশেষ সাধারন সভা ডেকে দেখিয়ে কিছু অবৈধ ও বে-আইনী সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে। জানা  গেছে , কয়জন  নিবেদিত প্রান সাবেক সভাপতি ও কর্মকর্তার মাথার উপর ও এ গোষ্ঠীর বহিস্কার প্রক্রিয়া ঝুলছে।

বিবাদী  শহীদুল ইসলামের নেতৃত্বে  স্বৈরতান্ত্রিক ও এজেন্ডা বিহীনভাবে একের পর এক অগনতান্ত্রিক ও হঠকারী সিদ্ধান্ত নেয়ায় কমিউনিটির মধ্যে তীব্র উত্তেজনা ও অসন্তোষ বিরাজ করছে।

মামলায় বাংলাদেশ কানাডা হেরিটেজ সোসাইটি অব এডমন্টন এর বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও ক্ষতিসাধনের  প্রতিকার ও ক্ষতিপূরণের আদেশ চাওয়া হয়েছে।(তথ্য বিবরনী) 

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ