অরেন্জ কাউন্টির আকাশে বাতাসে জানান দিয়ে গেল " রং"এর বসন্ত উৎসব'' বসন্ত এসে গেছে-

March 20, 2019, 12:55 PM, Hits: 900

অরেন্জ কাউন্টির আকাশে বাতাসে জানান দিয়ে গেল " রং"এর বসন্ত উৎসব'' বসন্ত এসে গেছে-

হসিনা বানু , হ-বাংলা নিউজ, হলিউড থেকে : গত ১৭ ই মার্চ রবিবার ২০১৯, অরেন্জ কাউন্টির আকাশে বাতাসে জানান দিয়ে গেল """ রং""এ বসন্ত উৎসব ''বসন্ত এসে গেছে । অত্যন্ত জাকজমক ভাবে বুয়েনা পার্কের বিশাল হল রুমে মনোজ্ঞ এক মন্চসজ্জায় আয়োজিত হল ''রং' এর বসন্ত উৎসব। এ অনুষ্ঠানের আয়োজক হাসিনা বানু সমাজের চ্যালেন্জ গ্রহন করে জানিয়ে দিলেন সততা নিষ্ঠা ও সিদ্ধান্তে অটল থাকলে যে কোন সূন্দর কাজ সম্পন্ন করা যায় ।


অনুষ্ঠানটির সার্বিক তত্বাবধানে ছিলেন সমাজের বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব জনাব সাইফুর ওসমানি জিতু, মন্চ সজ্জায় মোহাম্মদ রহমান ও সাবিনা হাছান, সাউন্ড সিস্টেমে রূপম অধিকারী, আর উপস্থাপনায় ছিলেন সমাজের অন্যতম সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব মিঠুন চৌধুরী এবং অনন্য মিষ্টি মেয়ে রোশণী আলম--। ক্যামেরা , ভডিও ও ফটো গ্রাফিতে অনন্য ব্যাক্তিত্ব সুখেন্দ্র পল ছিলেন সর্বদা একাগ্র ।

অনুষ্ঠানটি আরম্ভ হয় শোক প্রস্তাব পাঠ করার মাধ্যমে-এতে ছিল সম্প্রতি নিউজিল্যান্ডের হত্যাকান্ডের প্রতি ধিক্কা প্রদান, যারা এই ঘটনায় প্রান হারিয়েছন তাদের আত্মার শান্তি কামনা এবং সমাজের বিশিষ্ট ব্যাক্তিত্ব জনাব আবু তৈয়বের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়।


এটা ছিল স্বাধীনতার মাস মার্চ, শত কোটী শহীদের আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত ও আমেরিকার জাতীয় সঙ্গীত বাজিয়ে এবং এক মিনিট নীরবতা পালন করে শোক প্রস্তাব শেষ করা হয়- পর্বটি উপস্থাপন করেন সাইফুল আলম চৌধুরী।


মন্চের পর্দা উঠানোর সাথে সাথে দেখা দেন সাইফুর ওসমানি জিতু। তিনি সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে জ্ঞান গর্ভ বক্তব্য প্রদান করেন এবং সমাজ থেকে অন্যা য় অবিচার ও নোংরামি পরিহার করার অনুরোধ জানান । তিনি পরিচয় করিয়ে দেন ''রং'' এর কর্ন ধার হাসিনা বানুকে--তিনি তার বক্তব্যে বলেন-সাহিত্য ও সাংস্কৃতিকচর্চায় কোন হীনমন্যতাও নোংরামি প্রশ্রয় দেওয়া হবেনা। তিনি সমাজে সংস্কৃতি চর্চার ক্ষেত্রে সমস্ত চ্যালেন্জ গ্রহন করতে প্রস্তুত এবং আনুষ্ঠানিকভাবে বসন্তকে বরন করে নেন।।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আরম্ভের পূর্বে পবিত্র কোরান থেকে অংশ বিশেষ পাঠ করেন জনাব ইকরামল হকভূইয়া-এবং গীতা পাঠ ও করা হয়। আত্মাকে শূদ্ধী করার প্রতিজ্ঞা নিয়ে-আগুনের পরশমনির ছোঁয়ায় বসন্তকে বরন করার লক্ষে উদ্বোধনি সঙ্গীত--'' আনন্দ লোকে মঙ্গল আলোকে'' এবং '' আগুনের পরশ মনি ছোঁয়াও প্রানে"" এ ই গান দুটো দিয়ে উদ্বো ধনী সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়, অংশ গ্রহনে--রত্না পাল, তৃষ্ণা ভাওয়াল ,চামেলী নন্দী, ডঃলিপী ও মোহাম্মদ আলী এবং ডঃ হাকিম।

পরবর্তিতে একেকটি রক্ত গোলাপের তোড়া দিয় লসএ্যান্জেলেসের বিশিষ্ট নেতা ওকর্নধারদের শূভেচ্ছা জানান "রং"" এর ও বসন্ত উৎসবের আয়োযক হাসিনা বানু। মন্চে ছিলেন বাফলার বর্তমান প্রেসিডেন্ট জনাব নজরুল আলম। সেক্রেটারি জেনারেল ইন্জিনীয়র জনাব শহীদ আলম এবং প্রাক্তন কর্নধার গন, মন্চে আরো ছিলেন বিশিষ্ট সাংবাদিক জনাব মাশহুরুল হুদা সহ ডঃইকবাল মুনীর , বাংলাদেশ আওয়ামিলীগ সভাপতি তৌফিক ছোলেমান খান তুহীন, ক্যালিফোরনিয়া ষ্টেট যুবলীগের সভাপতি সুবর্ন নন্দী তাপস  বিজয় বহর ২০১৯ এর সেক্রেটারী জেনারেল ইসমাইল হোসেন, চেয়ারম্যান সাইফ কুতূবী, কনভেনর মীখাইল খান, জনাব মুজীব সিদ্দীকি, ইউ এস বাংলার সভাপতি জাফর চৌধুরী, জেসমিন খান ফাউন্ডেশনের কর্নধার মোসলেম খান এবং আনন্দ মেলার কর্ন ধার আলী ভাই এবং বশীর আতাহার। এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন লসএঞ্জেলেস সিটি যুবলীগের সভাপতি আলমগীর হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান ইমরান।


বাচ্চাদের সাংস্কৃতিক পর্বে গানে অংশ নেয় তাথৈ , নৃত্যে আয়েশা ও আনিসা, নোরা কাজী, তন্বী নন্দী এবং লস এ্যান্জেলেস খ্যাতনৃত্য শল্পী অনী, কবিতায় ছিল সূধা নন্দী। এদের মনমাতানো উপস্থাপনায় মাটির গন্ধে জানান দিল বসন্ত এসে গেছে---। সঙ্গীতে অংশ নেন লস এ্যান্জেলেস খ্যাত সব শিল্পীরা--ঊর্মী আতহার, সূলতানা কবীর মিতালী, উপমা সাহা মজুমদার, সাদিয়া রহমত উল্লাহ, ফারজানাবাবু , লুনা রহমান, রূমী ফারুক এবং ডঃ সালমা খান। শুধু তাইনয় সঙ্গীতে আরো ছিলেন-ডঃ ইকবাল মুণীর,ডঃ হাকিম,ইন্জিনীয়র শহীদ আলম, জনাব সাইফকূতুবী, ওমরফারুক ও অমিতেষ দাস । এই প্রখাত শিল্পীদের উপস্থা পনায় বুয়েনাপর্কের হেরীটেজ হলে সত্যি সত্যি বসন্তের পরীরা নেমে এসে ছিল মর্ত্যে--গান ও নাচের অপূর্ব মূর্ছনা নিয়ে এবং বিভিন্ন খাবারের ষ্টলের খাবারের স্বাদ নিয়ে দর্শক ও শ্রোতারা বাড়ী ফিরে যান । 

 
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ