বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে নিউইয়র্ক সিটির ব্রঙ্কস বোরো প্রেসিডেন্টের প্রক্লামেশন প্রদান

March 22, 2019, 12:14 PM, Hits: 189

বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে নিউইয়র্ক সিটির ব্রঙ্কস বোরো প্রেসিডেন্টের প্রক্লামেশন প্রদান

সাখাওয়াত হোসেন সেলিম, হ-বাংলা নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে :  বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে নিউইয়র্ক সিটির ব্রঙ্কস বোরো প্রেসিডেন্টের পক্ষ থেকে বাংলাদেশকে প্রক্লামেশন প্রদান করা হয়েছে। সিটির ব্রঙ্কস বোরো প্রেসিডেন্টের কনফারেন্স হলে গত ২১ মার্চ বৃহস্পতিবার বিকেলে আয়োজিত এক বিশেষ অনুষ্ঠানে এ প্রক্লামেশন প্রদান করা হয়। বোরো প্রেসিডেন্ট রুবিন ডিয়াজ জুনিয়র বাংলাদেশী কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে এ প্রক্লামেশন হস্তান্তর করেন।

ব্রঙ্কস বোরো প্রেসিডেন্ট রুবিন ডিয়াজ জুনিয়রের আয়োজনে ব্যতিক্রমী এ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশী কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। অন্যদের মধ্যে ছিলেন বাংলাদেশী-আমেরিকান কমিউনিটি কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট ও ব্রঙ্কস কমিউনিটি বোর্ডের ফাস্ট ভাইস চেয়ারম্যান আইনজীবী মোহাম্মদ এন মজুমদার, ব্রঙ্কস কমিউনিটি বোর্ড মেম্বার সারোয়ার জাহান লাহিন, কমিউনিটি এক্টিভিস্ট নজরুল হক, মঞ্জুর চৌধুরী জগলুল, আবদুল গাফফার চৌধুরী খসরু, মোতাসিম বিল্লাহ তুষার, জালাল চৌধুরী, সারোয়ার চৌধুরী, মেহেরুন্নেসা জোবাইদা প্রমুখ। এছাড়াও ব্রঙ্কস বোরো প্রেসিডেন্টের চীফ অব স্টাফ, প্রেস সেক্রেটারী এলিনা সুরিয়েল সহ বাংলাদেশী মিডিয়ার মধ্যে ইউএসএনিউজঅনলাইন.কম এবং সাপ্তাহিক জনতার কন্ঠ’র সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন সেলিম অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন।
এসময় নিউইয়র্কে বাংলাদেশী কমিউনিটির অগ্রযাত্রা, নানা ক্ষেত্রে অবদান সহ বাংলাদেশ-আমেরিকার মধ্যকার সম্পর্ক উন্নয়নের নানা বিষয় ওঠে আসে। ভবিষ্যতে ব্যাপক আকারে বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের বিষয়টিও আলোচনায় স্থান পায়। কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের দাবির প্রেক্ষিতে  ব্রঙ্কসে একটি শহীদ মিনার প্রতিষ্ঠার বিষয়ে বোরো প্রেসিডেন্ট রুবিন ডিয়াজ জুনিয়র প্রচেষ্টা চালাবেন বলেও জানান।
তিনি তার বক্তব্যে বাংলাদেশী কমিউনিটির অগ্রযাত্রা, নানা ক্ষেত্রে তাদের অবদানের ভূঁয়সী প্রশংসা করেন। তিনি সবসময় ইমিগ্র্যান্ট তথা বাংলাদেশী কমিউনিটির পাশে থাকার অঙ্গীকার ব্যক্ত করে বলেন, আমেরিকার অর্থনীতি, রাজনীতিসহ সর্ব ক্ষেত্রে বাংলাদেশীরা এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশী কমিউনিটিকে তার অকৃত্তিম বন্ধু হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেন, সকলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আমাদের আরো অনেক দূর এগিয়ে যেতে হবে।
বোরো প্রেসিডেন্ট রুবিন ডিয়াজ জুনিয়রের বিশেষ উদ্যোগে বাংলাদেশের ৪৮তম স্বাধীনতা দিবসের সম্মাননা প্রদানের জন্য বাংলাদেশী কমিউনিটি পক্ষ থেকে রুবিন ডিয়াজ জুনিয়রকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান মোহাম্মদ এন মজুমদার। উল্লেখ্য, ব্রঙ্কস বোরো প্রেসিডেন্টের পক্ষ থেকে এবারই প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করা হলো।


 

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ