শিশুরা এল পানি ও শরবত নিয়ে !

March 30, 2019, 12:07 PM, Hits: 105

 শিশুরা এল পানি ও শরবত নিয়ে !

হ-বাংলা নিউজ : হাসপাতালে সেবা নিতে আসা রোগীদের দীর্ঘ লাইন এ দেশের স্বাভাবিক চিত্র। শনিবারে তেমনই একটি নিরস চিত্র ছিল সৈয়দপুরের ১০০ শয্যার হাসাপাতালে। রোগীদের দীর্ঘ লাইন, কেউ কেউ ক্লান্ত, কেউ আবার বিরক্ত।

তবে হঠাৎ পাল্টে গেল এই চিত্র। একঝাঁক শিশু–কিশোর আনন্দ হয়ে প্রবেশ করল সেখানে। তাদের কারও হাতে লেবু, কেউবা নিয়ে এসেছে চিনি। অনেকে আবার বাড়ি থেকে নিয়ে এসেছে পানির ফিল্টার। ১২ থেকে ১৬ বছর বয়সী শিশু–কিশোরেরা পরম মমতায় বাড়িয়ে দিচ্ছে ঠান্ডা শরবত আর বিশুদ্ধ পানির গ্লাস। রোগীরা তা তৃপ্তি নিয়ে পান করছেন আর মাথায় হাত বুলিয়ে করছেন আশীর্বাদ। এমন বৈচিত্র্যময় অনুষ্ঠানটির আয়োজন করেছিল ‘আমাদের প্রিয় সৈয়দপুর’।

নীলফামারীর সৈয়দপুরে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত সৈয়দপুর ইউনাইটেড ভলেন্টিয়ার অ্যাসোসিয়েশন (সুভা)। তারই একটি অঙ্গসংগঠন আমাদের প্রিয় সৈয়দপুর।

শনিবার সংগঠনের ১৭ জন সদস্য স্বেচ্ছায় রোগীদের ভোগান্তি কমাতে নানা ধরনের সেবা দিতে থাকেন। তাঁরা কোনো রোগীকে ডাক্তারের কক্ষে পৌঁছে দেন, কেউ আবার জরুরি বিভাগের রোগীকে নিতে স্ট্রেচার বহন করছেন। অন্যরা সার্বিক শৃঙ্খলা বজায় রাখতে কাজ করেন। তাঁদের সঙ্গেই যোগ দেয় কচি–কাঁচারা।

তাঁদের সঙ্গে যোগ দেন সৈয়দপুরের চিনি মসজিদের ইমাম ও খতিব হাফেজ মাওলানা শাহিদ রেজা। তিনি বলেন, ইমাম ও খতিবেরা শুধু নামাজ পড়াবেন তা নয়, তাঁরা স্বেচ্ছামূলক বিভিন্ন সেবামূলক কাজেও অংশ নেবেন।

আমাদের প্রিয় সৈয়দপুরের অর্থ সম্পাদক সাজিদ সাজু জানান, সুভার ব্যানারে তাঁদেরকে সেবামূলক কাজের এই দায়িত্ব দিয়েছেন সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)। গরমের কথা মাথায় রেখেই তাঁরা হাসপাতালকে বেছে নিয়েছেন। তাঁরা এর ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখবেন।

সুভার প্রতিষ্ঠাতা ইউএনও এস এম গোলাম কিবরিয়া জানান, সৈয়দপুরে সর্বত্র এমন উদ্যোগ ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য সুভার অঙ্গসংগঠনগুলো নিরলস কাজ করছে। তিনি আরও বলেন, প্রতিটি সংগঠনকে লটারির মাধ্যমে এক দিন করে স্বেচ্ছায় হাসপাতালে সেবামূলক কাজের দায়িত্ব দেন তাঁরা। 

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ