ক্যমিউনিটি সেন্টার নির্মাণের ভাবনা, পা ফেলতে হবে সাবধানে!

November 28, 2019, 2:09 PM, Hits: 627

ক্যমিউনিটি সেন্টার নির্মাণের ভাবনা, পা ফেলতে হবে সাবধানে!

খায়রুজ্জামান মামুন, হ-বাংলা নিউজ, হলিউড থেকে : বাংলাদেশ আমেরিকান সোসাইটি (BAS)  নামক সদ্য গঠিত সংগঠনটি গত ২৪ শে নভেম্বর, রবিবার একটি মতবিনিময় সভার আয়োজন করে সবাইকে জানিয়ে দিয়েছেন তারা বাংলাদেশি-আমেরিকান কমিউনিটির জন্য একটি আধুনিক কমিউনিটি সেন্টার নির্মাণ করতে চায়। কানাঘুষা শুরু হয়েছে বহুধাবিভক্ত  এই কমিউনিটিতে এমন একটি উচ্চাভিলাষী প্রকল্প বাস্তবায়ন আদৌ সম্ভব কিনা।  

সংগঠনটির যে মূল স্লোগান "Unity We Trust" অতীত বলে, সেখানটাতেই ভেস্তে গেছে বিগত দিনগুলোতে নেওয়া আমাদের অধিকাংশ মহৎ উদ্দেশ্য গুলি। 

সুতরাং “সবাইকে” include করার চিন্তা ঝেরে ফেলে “যথাসম্ভব” include এর দিকে নজর দিতে হবে। 

রবিবারের এই মতবিনিময় সভায় প্রথম থেকে অন্তত ৪/৫ সারি পর্যন্ত আসন গ্রহণ করা যে সব নেতৃবৃন্দকে দেখেছি গুটি কয়েক বাদ দিয়ে বাকি সবার মধ্যেই অহংবোধের সমস্যাটা বেশ প্রকট এবং তাঁদের এই অহংবোধই আমাদের কমিউনিটির একতাবদ্ধ না হওয়ার অন্যতম প্রধান অন্তরায়।  

যেমন ঐদিন সভাস্থলেই ঘটে যাওয়া অন্তত দুটি ঘটনা এর যৌক্তিকতা প্রমাণ করে। 

এক. সিনিয়র কমিউনিটি নেতা জনাব জয়নাল আবেদীনের বক্তৃতা প্রদান কালে মান্যবর জনাব মমিনুল হক বাচ্চুর সাথে মৃদু বাহাস, দুই. মেজর অবঃ সাইফ কুতুবীর বক্তৃতায় সকলের সাহায্য চেয়ে আরেক সিনিয়র কমিটি নেতার হাত থেকে তাকে বাঁচানোর আর্তনাদ।  

তাহলে ?  বিফলে যাবে কি এই মহৎ উদ্দেশ্যটিও? মামুলি উত্তর হচ্ছে "হ্যাঁ"। কিন্তু এবারের প্রেক্ষাপট একটু ভিন্ন। 

যিনি এই মহতী উদ্যোগের নেতৃত্ব দিচ্ছেন তিনি (BAS এর সভাপতি জনাব সাইদুল হক সেন্টু) ইতিমধ্যে জানিয়ে দিয়েছেন যে তিনি এবং তার টিম  হারার আগেই হারবেন না। 

জনাব সেন্টুর সাথে কথা বলার সময় তার চোখে-মুখে ওই স্বপ্ন বাস্তবায়নের যে স্পৃহা দেখেছি, যে পরিকল্পনার কথা শুনেছি তাতে মনে হচ্ছে আসলেই তিনি ছেড়ে দেবেন না হাল। সরাসরি না বললেও বুঝতে অসুবিধা হয়নি বিষয়টাকে তিনি অনেকটা চ্যালেঞ্জ হিসেবেই দেখছেন। 

পর্যবেক্ষকদের মত, জনাব সেন্টুকে তার এই দুর্গম পথ পাড়ি দিতে গিয়ে গভীরভাবে লক্ষ্য রাখতে হবে লস এঞ্জেলেসের বাংলাদেশি কমিউনিটির যে এলিট ক্লাস গ্রুপটা আছে তাদের দিকে। এই গ্রুপটাকে বেশি involve/ignore কোনটাই করা যাবে না। মাঝেমধ্যে সবাইকে ডেকে বক্তৃতা /উপদেশ দেওয়ার একটা সুযোগ করে দেওয়ার আইডিয়াটা মন্দ না। কমিউনিটির বিশিষ্ট জন ডা: নাজমুল উল্লাহ তার বক্তৃতায় বলেছিলেন কমিউনিটি সেন্টার নির্মাণের জন্য টাকা কোন সমস্যা হবে না, সমস্যা হবে অন্য জায়গায়। 

জনাব নাজমুল উল্লাহর কথায় “অন্য জায়গায়”বলে যে ইঙ্গিত দিয়েছেন জনাব সাইদুল হক সেন্টু ও তার টীমমেট দের তা উপলব্ধি করতে হবে এবং সেই অনুযায়ী এগুতে হবে। কমিটিসেন্টার টি কে অলাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলার চিন্তা বাদ দিয়ে লাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলার পথে হাঁটলে মঙ্গল হবে বলে সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের মত।

অধিকাংশের মত আমিও চাই বাংলাদেশ আমেরিকান সোসাইটির এই মহতী উদ্যোগ যেন ভেস্তে না যায়। বিশ্বের অন্যতম বড় শহর লস এঞ্জেলেসের বুকে গড়ে উঠুক একটি অত্যাধুনিক বাংলাদেশী কমিউনিটি সেন্টার যা নিয়ে গর্ববোধ করবে লস এঞ্জেলেসের আশেপাশে বসবাসকারী প্রায় ৩০/৪০ বাংলাদেশী এবং এর সুফল ভোগ করবে বর্তমান এবং আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম। বাংলাদেশ আমেরিকান সোসাইটি(BAS) এর এই উদ্যোগের প্রতি শুভকামনা রইল। 

 
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ