মেসি শুধু হাঁটে আর হাঁটে, এরপর...

November 30, 2019, 11:21 AM, Hits: 90

মেসি শুধু হাঁটে আর হাঁটে, এরপর...

হ-বাংলা নিউজ : তারুণ্যের উচ্ছ্বাসে বল পায়ে সাপের মতো আঁকাবাঁকা দৌড়ে ছুটে চলা লিওনেল মেসির দেখা এখন কদাচিৎই মেলে। লিওনেল মেসি মানে এখন মাঠজুড়ে হেলেদুলে হেঁটে বেড়ানো একজন। তবু কী ভয়ংকর বার্সেলোনা ফরোয়ার্ড! রক্ষণভেদী পাসে দলের আক্রমণ গড়ে দেওয়া, আর প্রতিপক্ষের দুর্বলতা টের পেলে হঠাৎ বল নিয়ে ছুটে চলা—বয়স যত বাড়ছে, মেসির খেলার ধরনের এই বদলটা চোখে পড়ছে আরও বেশি করে।

ম্যাচের বেশির ভাগ সময়ে হাঁটতে থাকা এই মেসিও যে কতটা ভয়ংকর, সেটি আলাদা করে নজর কেড়েছে কিয়েরান ট্রিপিয়েরেরও। এই মৌসুমেই অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে যোগ দেওয়া ইংলিশ রাইটব্যাকের বিশ্লেষণ—মেসি হাঁটতে হাঁটতেই কখন যে গোল করে বসেন, টেরও পাওয়া যায় না!

স্প্যানিশ লিগে আগামীকাল বাংলাদেশ সময় রাত দুইটায় নিজেদের মাঠে মেসির বার্সেলোনার বিপক্ষে নামবে ট্রিপিয়েরের অ্যাটলেটিকো। তা ‘যুদ্ধে’র আগে প্রতিপক্ষকে কতটা পড়েছেন ট্রিপিয়ের? অ্যাটলেটিকোর জার্সিতে এই প্রথমবার মেসির বিপক্ষে নামছেন ঠিকই, কিন্তু এর আগে মেসির বিপক্ষে খেলার অভিজ্ঞতা তো হয়েছে। ২৯ বছর বয়সী রাইটব্যাক যেন মুগ্ধ মেসিতে। ‘ও অবিশ্বাস্য, সর্বকালের সেরা’— ইংলিশ ক্রীড়াদৈনিক দ্য অ্যাথলেটিককে বললেন ট্রিপিয়ের।

কেন সেরা, সেটির ব্যাখ্যাতেই এল মেসির হেঁটে হেঁটে গোল করে আসার ব্যাপারটা, ‘একভাবে দেখতে গেলে ব্যাপারটা কেমন যেন অদ্ভুতুড়ে। ও ম্যাচের অনেকটা সময় শুধু হেঁটে হেঁটেই পার করে।’ লিভারপুলের হয়ে বাঁ উইংয়ে ইউরোপজুড়ে ত্রাস ছড়ানো সাদিও মানের সঙ্গে তুলনা টেনে ট্রিপিয়েরের কথা, ‘আপনি যখন সাদিও মানের বিপক্ষে খেলবেন, এক মুহূর্তের জন্য ওর ওপর থেকে চোখ সরালেই দেখবেন ও আপনার চোখে ধুলো দিয়ে চলে গেছে। কিন্তু মেসির বিপক্ষে? আপনি হয়তো চারবার তাকালেন, দেখবেন ও একই জায়গায় আছে। অদ্ভুত। অনেকটা সময় ও শুধু হাঁটে আর হাঁটে, এরপর...আপনি কিছু বুঝে ওঠার আগেই দেখবেন গোল হয়ে গেছে!’

বর্তমানে ম্যানচেস্টার সিটি কোচ ও বার্সেলোনায় যাঁর হাত ধরে মেসির সত্যিকারের মেসি হয়ে ওঠা, সেই পেপ গার্দিওলা একবার বলেছিলেন, ‘মেসি মাঠে যখন হাঁটে, তখনো ও ভয়ংকর। ওকে দেখে মনে হবে ও মাঠে অযথাই হাঁটছে, কিন্তু ও আসলে তখন ওকে গায়ের সঙ্গে লেগে থাকা ডিফেন্ডারের কাছ থেকে আস্তে আস্তে নিজেকে সরিয়ে নেয়। প্রতিটি খেলোয়াড়, প্রতিটি মুহূর্তকে ও তখন এক্স-রে করে। প্রতিপক্ষের দুর্বলতা খোঁজে। এরপর যখন বল ওর কাছে আসে...কতটুকু জায়গা, কতটুকু সময় ওর হাতে আছে (প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারকে এড়িয়ে যাওয়ার) সেটার পুঙ্খানুপুঙ্খ হিসাব ততক্ষণে ওর মাথায়।’

ট্রিপিয়েরের কণ্ঠেও মেসির ম্যাচ পড়ার এই অবিশ্বাস্য বুদ্ধিমত্তার প্রশংসা, ‘ওর বিপক্ষে বেশ কয়েকবারই খেলেছি আমি। ও কী দারুণভাবে ছোট ছোট পকেট (মাঝমাঠ ও রক্ষণভাগে খেলোয়াড়দের মাঝে ছোট ছোট জায়গা) বের করে নেয়! বল কোন জায়গায় যাবে, সেটা বার্সেলোনা তিনটি পাস একসঙ্গে খেলার আগেই বুঝে যায় ও।’

গত মৌসুমে টটেনহামের জার্সিতে চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপপর্বে মেসির বার্সার বিপক্ষে খেলেছিলেন ট্রিপিয়ের। এর মধ্যে টটেনহামের মাঠে ম্যাচটিতে মেসি ছিলেন অবিশ্বাস্য, বার্সা জিতেছিল ৪-২ গোলে। সেদিন দুই গোল করা মেসির সেই পারফরম্যান্স এখনো ভোলেননি ট্রিপিয়ের, ‘সবাই জানে ও কতটা ভালো, তবে ওই ম্যাচে ও কয়েকগুণ বেশি ভালো খেলেছিল। দুটি গোল করেছিল, অন্তত চারবারের মতো পোস্টেও বল মেরেছে! অবিশ্বাস্য ছিল ও।’

আগামীকাল তেমন ছন্দে থাকবেন না মেসি, এ-ই নিশ্চিত ট্রিপিয়েরের চাওয়া। মেসি আর বার্সেলোনাকে রুখে দিতে পারলে যে শিরোপা লড়াইয় আরও জমিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি নিজেদের সম্ভাবনাও আরও উজ্জ্বল হবে অ্যাটলেটিকোর। এই মুহূর্তে ১৪ ম্যাচে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকার চারে অ্যাটলেটিকো, বার্সেলোনার পয়েন্ট ১৩ ম্যাচে ২৮। 

 
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ