করোনা ভাইরাস! দরকার আমাদের আত্মউপলব্ধি।

March 15, 2020, 12:53 PM, Hits: 1212

করোনা ভাইরাস! দরকার আমাদের আত্মউপলব্ধি।

খায়রুজ্জামান মামুন, হ-বাংলা নিউজ, হলিউড থেকে :  আক্রান্ত দেশ: ১৫৬, আক্রান্ত রোগী: ১৬২৭০০, মৃতের সংখ্যা: ৬০৬৯(৭%), আরোগ্য লাভ:৭৬২১(৯৩%), বর্তমানে আক্রান্ত:৭৪৭৫৭।এই তালিকা রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আপডেটেড। প্রতি মিনিটেই এর পরিবর্ত হচ্ছে। 

১. করোনা ভাইরাস আতংকে কাঁপছে সারাবিশ্ব! ২০১৯ সালে ৩১শে ডিসেম্বর চীনের উহান প্রদেশে এর যে সংক্রমন শুরু হয়েছিল পর্যায়ক্রমে তা ছড়িয়ে পড়েছে দেশ থেকে দেশান্তরে। সংক্রমিত হয়েছে লক্ষাধিক মানুষ। মৃতের সংখ্যা এপর্যন্ত ছয় হাজার এর অধিক।আতংকিত মানুষ! প্রানভয়ে গ্রহন করছে বিভিন্ন রকম সতর্কতা মুলক ব্যবস্থা। পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে এই আশংকা থেকে ভোগ্য পন্যের দোকান গুলিতে হুমরি খেয়ে পড়ছে সবাই। এত মানুষের ভীড়ের মোধ্যে যে কারও কাছ থেকে করোনা ভাইরাসের জীবাণু ঘরে নিয়ে আসতে পারে সেই খেয়াল পর্যন্ত নেই। আসলে প্রায় সময়েই আমরা খুব বে-খেয়ালী আচরন করি। লক্ষ করলেই দেখবেন কিছু মানুষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অন্যকে সতর্ক করতে গিয়ে অতিরঞ্জিত পোষ্ট দিচ্ছে যা সমাজে প্যানিক(আতংক ছড়ানো) তৈরি করছে, কেউবা আবার করোনা ভাইরাস নিয়ে কৌতুক/হাস্যকর পোষ্ট দিচ্ছে যা কিনা আমাদের হীন মান্যতারই বহিপ্রকাশ মাত্র। 

২. করোনা ভাইরাস সংক্রমনের ফলে বিশ্ব অর্থনীতিতে যে ধাক্কা লেগেছে তার সুদুর প্রসারী প্রভাব যে কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে তা এই মুহুর্তে অনুমান করা দুষ্কর। বিশেষজ্ঞরা আবারও একটি বড় ধরনে অর্থনৈতিক মন্দার আশংকা করছেন। বিশ্বব্যাপী উৎপাদন, এবং আমদানি রফতানি মারাত্মক ভাবে ব্যাহত হচ্ছে। বিশ্বের শেয়ার বাজার গুলোর রেকর্ড সংখ্যক দরপতন এবং এর ফলে মাইক্রোসফট, অ্যামাজন, এ্যাপল এবং ফেইসবুক এর মত জায়ান্ট কোম্পানী গুলোর বিলিয়ন বিলিয়ন ডলারের ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে যার প্রভাব খুব শিঘ্রই দৃশ্যমান হবে। 

৩. আল্লাহ মহান! তিনি প্রবল পরাক্রমশালী। কারো মুখাপেক্ষী তিনি নন বরং আমরা সবাই তার মুখাপেক্ষী। তিনি মানব জাতিকে বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে পরীক্ষা করে থাকেন। তিনি এসব বিপদকালীন সময়ে ধ্যৈর্য ধারন করতে বলেছেন। নিশ্চই পরিত্রানের পথও তিনিই আমাদের দেখাবেন। মানব জাতীর জন্য করনীয় হল এই সকল আপদকালীন সময়গুলি থেকে শিক্ষা নিয়ে মহান আল্লাহ তালার অসীম ক্ষমতাকে অনুধাবন করা। সাধারন একটি ভাইরাসের আক্রমণেই যদি আজ সারা পৃথিবীর মানুষ নিজেদের স্বেচ্ছায় গৃহবন্দি করে ফেলে তাহলে এর চেয়ে বড় কোন বিপদ আসলে আমাদের কিই বা করার আছে।একটি ভাইরাস বিশ্ববাসীকে আজ চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে গেছে মানুষ হিসাবে আমরা কত অসহায়। মিলিওনিয়ার/বিলিওনিয়ার বলেন অথবা পারমানবিক অস্ত্রের হুংকারই বলেন কিংবা তথ্যপ্রযুক্তির বড়াই কোন কিছুই যে আজ কাজে আসছে না।সর্বশেষ ভরসা তাই সর্বশক্তিমানের উপরেই রাখতে হচ্ছে। তাই যদি হয় তাহলে তবে কেন পৃথিবীময় আমরা এক দেশ অন্য দেশের প্রতি, এক জাতী অন্য জাতীর প্রতি কিংবা এক ধর্মের লোক অন্য ধর্মের লোকদের  প্রতি অন্যায় অবিচার করছি। কেন সৃষ্টিকর্তার ভয় আমাদের অন্তরে নেই। সৃষ্টির সেরা জীব হিসাবে আমাদের উপলব্দিতে আসতে হবে যে “বিশ্বমানবতার সম্প্রীতি” আজ এই সুন্দর পৃথিবীটাকে ঠিকিয়ে রাখার জন্যই অপরিহার্য হয়ে পড়েছে। অন্যথায় সামনের দিন গুলোতে আরো ভয়ংকর কিছু অপেক্ষা করছে আমাদের জন্য। মহান করুনাময় আমাদের সবাইকে সকল প্রকার অনিষ্ট থেকে হেফাজত করুন। আমিন! 

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ