প্রবাসীদের পক্ষ থেকে প্রেস কনফারেন্স। কটাক্ষের প্রতিবাদ ও শাস্তি দাবী

May 9, 2020, 9:45 AM, Hits: 261

প্রবাসীদের পক্ষ থেকে প্রেস কনফারেন্স। কটাক্ষের প্রতিবাদ ও শাস্তি দাবী হ-বাংলা নিউজ : প্রবাসী অধ্যুষিত সিলেটসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্থ গরিব অসহায়দের বেসরকারীভাবে সবচেয়ে বেশি সহযোগিতা করে যাচ্ছেন প্রবাসী র‌্যামিট্যান্স যোদ্ধারাই। শুধু তাই নয়। প্রবাসীরা সারা বছরই নিজ নিজ এলাকার গরিব অসহায়দের সাহায্য সহযোগিতা ছাড়াও এলাকার উন্নয়নে রাখছেন অসামান্য অবদান। প্রেরণ করছেন বৈদেশিক মুদ্রা। প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের অন্যতম চালিকাশক্তি। কিন্তু করোনা ভাইরাসকে কেন্দ্র করে কিছু প্রতিষ্ঠান ঢালাওভাবে প্রবাসীদের প্রবেশ না করার সাইনবোর্ড টানান তাদের প্রতিষ্ঠানের প্রবেশপথে। এতে বিস্মিত ও ক্ষুব্ধ হন প্রবাসীরা এবং তাদের স্বজন শুভাকাঙ্খীরা। এসবের প্রতিবাদে প্রবাসীদের পক্ষ থেকে এক প্রেস কনফারেন্সের আয়োজন করা হয়। ৯ মে শনিবার সিলেটের বিশ্বনাথে যুক্তরাজ্য প্রবাসী সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আলহাজ্ব মোঃ শাহ আলম পশ্চিম অলংকারীস্থ নিজ বাসভবনে এই প্রেস কনফারেন্সের আয়োজন করেন। কনফারেন্সে প্রবাসীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী কমিউনিটি নেতা, অলংকারী পৌদনাপুর হাফিজিয়া দাখিল মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ শাহ আলম, সৌদিআরব প্রবাসী কমিউনিটি নেতা বৃহত্তর সিলেট আওয়ামী পরিবার জেদ্দা এবং খাজাঞ্চী ইউনিয়ন প্রবাসী জনকল্যাণ সংস্থা জেদ্দার সভাপতি আলহাজ্ব আরশ আলী গণি, লন্ডন প্রবাসী কমিউনিটি নেতা মোঃ আনোয়ার আলী, মোঃ সাইদুল আলী, আবুল হোসেন, সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসী সাহাবুদ্দিন, প্রবীণ সালিশ ব্যক্তিত্ব আলমাছ আলী। বক্তব্যে আলহাজ্ব মোঃ শাহ আলম বলেন, মুক্তিযোদ্ধের সময় আমাদের অগ্রজ প্রবাসীরা প্রবাসে স্বাধীনতার পক্ষে জনমত গঠন এবং প্রবাস থেকে তহবিল সংগ্রহ করে দেশে পাঠিয়ে মহান মুক্তিযোদ্ধে অসামান্য অবদান রেখেছিলেন। আমরা তাদের উত্তরসুরী। আমরা র‌্যামিট্যান্স যোদ্ধারা নাড়ির টানে আমাদের নিজ দেশে বার বার আসি বলেই আমাদের দেশের বিমানবন্দরগুলো সচল রয়েছে। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, স্কুল, কলেজ, মসজিদ, মাদরাসা, ব্রিজ, কালভার্ট, রাস্তাঘাট নির্মাণসহ দেশের সার্বিক উন্নয়নে প্রবাসীদের রয়েছে অসামান্য অবদান। কিন্তু দুঃখের বিষয় সিলেটের ইবনে সিনা হাসপাতাল, ফুলকলির একটি ব্রাঞ্চ এবং উত্তরা ব্যাংকের একটি ব্রাঞ্চ তাদের প্রবেশপথে প্রবাসীদের প্রবেশ না করার সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে প্রবাসীদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ ঘটিয়েছে। তিনি এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সরকারসহ সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের প্রতি জোর দাবী জানান। পাশাপাশি এসব প্রতিষ্ঠান বয়কটের জন্য প্রবাসীসহ সংশ্লিষ্ঠ সকলের প্রতি অনুরোধ জানান। বক্তব্যে সৌদিআরব প্রবাসী, বৃহত্তর সিলেট আওয়ামী পরিবার জেদ্দা এবং খাজাঞ্চী ইউনিয়ন প্রবাসী জনকল্যাণ সংস্থা জেদ্দার সভাপতি আলহাজ্ব আরশ আলী গণি বলেন, আমাদের প্রবাসীদের কষ্টার্জিত অর্থে উন্নয়ন হচ্ছে দেশের। উন্নয়ন হচ্ছে সমাজের। প্রবাসী র‌্যামিট্যান্স যোদ্ধারা দেশের স্বজনদের অক্সিজেন হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন বিরামহীনভাবে। তাই প্রবাসীদের হেয় প্রতিপন্ন করা আমরা কখনো বরদাশত করবোনা। আমি আমার সংগঠন বৃহত্তর সিলেট আওয়ামী পরিবার জেদ্দা এবং খাজাঞ্চী ইউনিয়ন প্রবাসী জনকল্যাণ সংস্থা জেদ্দার পক্ষ থেকে এর তীব্র নিন্দা ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। পাশাপাশি এদেরকে বয়কটের আহবান জানাচ্ছি সকলকে। এসময় উপস্থিত ছিলেন প্রবীণ সালিশ ব্যক্তিত্ব হাজী ওয়াতির আলী, আসলম আলী, ফজলুল হক, বশর আলম প্রমূখ।

 
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ