ট্রলকারীদের ‘অসুর’ সম্বোধন করে অমিতাভের ক্ষোভ

July 29, 2020, 9:57 AM, Hits: 81

ট্রলকারীদের ‘অসুর’ সম্বোধন করে অমিতাভের ক্ষোভ

হ-বাংলা নিউজ : মুম্বাইয়ের নানাবতী হাসপাতালে দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে চিকিৎসাধীন আছেন অমিতাভ বচ্চন। তাঁর শারীরিক অবস্থা এই ভালো তো এই মন্দ। হাসপাতালে থেকেই তিনি বরাবরের মতোই সক্রিয় আছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ও টুইটার অসংখ্য আশীর্বাদের সঙ্গে কিছু অভিশাপও নিয়ে এসেছে। তাই তারকাদের নিয়ে ‘ট্রলিং, বুলিং’কে অনেকে তারকা হওয়ার ‘প্যাকেজের অংশ’ হিসেবে সয়ে আসছিলেন। কিন্তু কড়া জবাব দিলেন অমিতাভ বচ্চন।

‘বলিউড শাহেনশাহ’ করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই একদল সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বলে আসছিল, তারা চায়, অমিতাভ বচ্চন যেন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মরে। একটা ‘আননোন’ অ্যাকাউন্টের সেই ইচ্ছার কথা শেয়ার করে হাসপাতালে করোনার সঙ্গে লড়াই করা অমিতাভ বচ্চন এর তীব্র ভর্ৎসনা করে বলেন, ‘ওরা চায় আমি করোনায় আক্রান্ত হয়ে মরি। আজ সে আমাকে নিয়ে এ কথা লিখতে পারল, কারণ আমি বেঁচে আছি। আর লোকে তার এই লেখা পড়ল, কারণ এটা অমিতাভ বচ্চনকে উদ্দেশ্য করে লেখা। অর্থাৎ, সে কেবল আমার তারকাখ্যাতিকে ব্যবহার করেই নিজে একটু “লাইমলাইটে” আসতে চায়। (কিন্তু সেটা তো নিজের পরিচয় ব্যবহার করে সম্ভব নয়। তাই মুখোশ আড়াল নিতে হয়েছে।) এই মুহূর্তে আমার সামনে কেবল দুটো রাস্তা খোলা। হয় আমি সুস্থ হয়ে উঠব, আরও কিছু কাজ করব, আরও কিছুদিন বাঁচব, অথবা আমি মারা যাব। আমি যদি মারা যাই, তাহলে সে বা তারা আর এসব বাজে কথা লেখার মতো অবস্থানে থাকবে না।’

অমিতাভের নিজের ব্লগে ট্রলকারীদের ‘অসুর’ সম্বোধন করে আরও লেখেন, ‘এখন যদি আমি মারা যাই, তাহলে এদের আর আমাকে নিয়ে নোংরা কথা লেখার ক্ষমতা থাকবে না। আর সৃষ্টিকর্তার ইচ্ছায় যদি আমি বেঁচে উঠি, তাহলে আমি এসব ট্রলিং, বুলিংয়ের শেষ দেখে ছাড়ব। ভুলে গেলে চলবে না, আমি মানে শুধু আমি নই, সব মিলিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আমার প্রায় নয় কোটি ভক্ত। তাঁরাও আমার পরিবারের বর্ধিত অংশ। তাই কেবল আমার মৃত্যু মানে আমার শেষ হয়ে যাওয়া নয়।’

ওদিকে ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন ও আরাধ্য ইতিমধ্যে করোনা নেগেটিভ নিয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন। তাঁদের বাড়ি ‘জলসা’ থেকেও করোনার সিল উঠিয়ে নেওয়া হয়েছে। বাড়ি ফিরে ঐশ্বরিয়া তাঁর ভক্তদের উদ্দেশে কৃতজ্ঞচিত্তে লিখেছেন, ‘আপনাদের প্রার্থনার জন্য শুকরিয়া। আমাদের ছোট্ট পরি আরাধ্য, বাবা (অমিতাভ বচ্চন), অভিষেক বচ্চন আর আমার জন্য আপনাদের দুশ্চিন্তা আর মঙ্গল কামনায় আমি আপ্লুত, কৃতজ্ঞ। সৃষ্টিকর্তা আপনাদের প্রতি সদয় হোন। আর আমাদের জন্য আপনাদের যতটা ভালোবাসা, আমাদের তরফ থেকেই আপনাদের প্রতি ততটাই ভালোবাসা আর কৃতজ্ঞতা।’

 
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ