করোনায় ইউরোপের দেশগুলোর নেয়া কঠোর পদক্ষেপ গুলো

August 15, 2020, 7:06 AM, Hits: 171

করোনায় ইউরোপের দেশগুলোর নেয়া কঠোর পদক্ষেপ গুলো

হ-বাংলা নিউজ : আজ শনিবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে এ তথ্য অনুযায়ী বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস শনাক্তের সংখ্যা ২ কোটি ১০ লাখ পেরিয়ে গেছে বলে জানানো হয়। 

যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বলেছে, করোনার সংক্রমণের গতি কমাতে সেপ্টেম্বর মাসজুড়ে কানাডা ও মেক্সিকো সীমান্তে অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণের নিষেধাজ্ঞা বাড়ানো হচ্ছে।

যুক্তরাজ্য তাদের দেশে আসা ফ্রান্সের নাগরিকদের জন্য দুই সপ্তাহের কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক করেছে। আজ শনিবার থেকে কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক দেশগুলোর তালিকায় ফ্রান্সকে যুক্ত করা হয়েছে। বর্তমানে প্যারিসে করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় তরঙ্গ চলছে। গত মে মাসের পর গত বুধ, বৃহস্পতি ও শুক্রবার দেশটির সংক্রমণ সংখ্যা প্রতিদিন ২ হাজার ৫০০ ছাড়িয়েছে। দেশটির পুলিশের পক্ষ থেকে বাইরে গেলে মাস্ক পরার বিষয়টি আরও বাধ্যতামূলক কথা বলা হয়েছে।

প্যারিসের পুলিশের সতর্ক করে বলেছে, মহামারি পরিস্থিতি খারাপ হলে মাস্ক পরার বিষয়টি বাধ্যতামূলক হতে পারে। বেশি সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখে ১০ জনের বেশি মানুষ একত্র হওয়া যাবে না।

স্পেন জানিয়েছে, তারা সব নাইট ক্লাব বন্ধ করে দেওয়ার পাশাপাশি রাস্তায় ধূমপানের বিষয়টি বন্ধ করতে যাচ্ছে। দেশটিতে গত বৃহস্পতিবার ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের সংখ্যা তিন হাজার পার হয়ে গেছে।

জার্মানি বলেছে, স্পেনের সব নাগরিককে তাদের দেশে ঢুকতে করোনা নেগেটিভ সনদ বা ১৪ দিন কোয়ারেন্টিন থাকার প্রমাণ দেখাতে হবে। অস্ট্রিয়া, আলবেনিয়া ও সাইবেরিয়াতেও কঠোর নিয়ম জারি করা হয়েছে।

বার্তা সংস্থা এএফপির তথ্য অনুযায়ী, গতকাল শুক্রবার কোভিড-১৯ শনাক্তের সংখ্যা ২ কোটি ১০ লাখ পার হয়ে যায়। এ সময় মৃত্যু হয়েছে ৭ লাখ ৫৫ হাজার মানুষের। সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছে যুক্তরাষ্ট্রে, ১ লাখ ৬৮ হাজার ৩১৮ জন। এরপর রয়েছে ব্রাজিলে, ১ লাখ ৫ হাজার ৪৬৩, মেক্সিকোতে ৫৫ হাজার ২৯৩ ও ভারতে ৪৮ হাজার ৪০ জন।

স্পেনের পাশাপাশি ফ্রান্সনেদারল্যান্ডস এখন যুক্তরাষ্ট্রের কোয়ারেন্টিন তালিকায় যুক্ত হয়েছে। এ দেশগুলোকে প্রথম কোয়ারেন্টিন ছাড় দিয়েছিল দেশটি।

বিশ্বজুড়ে করোনা প্রতিরোধে ও লকডাউন তুলে দেওয়ার বিষয়টি কার্যকর টিকার ওপর নির্ভর করছে। গতকাল যুক্তরাজ্য বলেছে, তারা সম্ভাব্য প্রতিশ্রুতিশীল দুটি টিকার নয় কোটি ডোজ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

ভিয়েতনাম জানিয়েছে, তারা রাশিয়ার কাছ থেকে স্পুটনিক টিকা কেনার কথা ভাবছে। অবশ্য পশ্চিমা দেশগুলোর গবেষকেরা এ টিকা দ্রুতগতিতে অনুমোদন দেওয়ার বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

ওয়াশিংটন বলছে, কোনো টিকা যদি কার্যকর বলে প্রমাণিত হয়, তবে মার্কিন নাগরিকদের কাছে তা বিনা মূল্যে সরবরাহ করা হবে।

লাতিন আমেরিকায় সবচেয়ে ভুক্তভোগী মেক্সিকো ও আর্জেন্টিনা বলছে, তারা আগামী বছরের শুরুতে অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকাটি পেতে উৎপাদন চুক্তিতে যাচ্ছে।

নিউজিল্যান্ডে করোনাভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় তরঙ্গ শুরু হয়েছে। দেশটির সবচেয়ে বড় শহর অকল্যান্ড ১২ দিনের লকডাউনে চলে গেছে। দেশটির প্রথম তরঙ্গের করোনা সংক্রমণ ঠেকানোর সফল প্রচেষ্টা বিশ্বজুড়ে প্রশংসা পেয়েছে। 

 
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ