নানা স্বাদে লতি-শাপলা-কলার মোচা

August 18, 2020, 1:06 PM, Hits: 258

নানা স্বাদে লতি-শাপলা-কলার মোচা

হ-বাংলা নিউজ : 

কলার মোচার কাবাবের বার্গার


উপকরণ: কলার মোচা ১ কাপ, বুটের ডাল আধা কাপ, হলুদগুঁড়া আধা চা-চামচ, আদাকুচি ১ চা-চামচ, রসুনকুচি আধা চা-চামচ, শুকনা মরিচের কুচি ১ চা-চামচ, পেঁয়াজকুচি ১ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচের কুচি আধা চা-চামচ, এলাচি–দারুচিনি–লবঙ্গ–তেজপাতা (প্রতিটি ২টি করে), ডিম ফেটানো পরিমাণমতো, টেম্পুরা পাউডার পরিমাণমতো, লবণ স্বাদমতো ও তেল পরিমাণমতো।

প্রণালি: মোচা কেটে হলুদ পানিতে ভিজিয়ে রেখে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে। তারপর এই মোচা একটু লবণ দিয়ে গরম পানিতে ভাপ দিয়ে নিতে হবে। হাত দিয়ে চেপে পানি ঝরিয়ে নিন। বুটের ডাল পানিতে আধা ঘণ্টা ভিজিয়ে নিতে হবে। পানি ঝরানো মোচার সঙ্গে বুটের ডাল, পেঁয়াজকুচি, শুকনা মরিচের কুচি, আদা-রসুনকুচি, লবণ ও গরমমসলা দিয়ে ভালোভাবে মেখে পানি দিয়ে সেদ্ধ করে নিতে হবে। এমনভাবে সেদ্ধ করতে হবে, যাতে কোনো পানি না থাকে। তারপর বেটে নিন। এরপর এই মিশ্রণে পেঁয়াজকুচি, কাঁচা মরিচের কুচি, ফেটানো ডিম, টেম্পুরা পাউডার দিয়ে ভালো করে মেখে নিন। এবার মাখানো মিশ্রণটি দিয়ে গোলাকৃতি কাবাব বানিয়ে রাখুন। কড়াইয়ে তেল গরম করে তাতে বানিয়ে রাখা কাবাবগুলো লাল করে ভেজে নিন। এরপর বার্গার বানের ভেতর মেয়নিজ, চিলি সস ও মাস্টার্ড সস লাগিয়ে মোচার কাবাব দিয়ে পরিবেশন করুন।

মুচমুচে লতি ভাজা


উপকরণ: কচুর লতি ২৫০ গ্রাম, বেসন ১ কাপ, চালের গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ, রসুনবাটা সিকি চা-চামচ, পানি পরিমাণমতো, লবণ স্বাদমতো ও তেল পরিমাণমতো।


প্রণালি: কচুর লতি একটু লম্বা করে কেটে ধুয়ে নিয়ে লবণ দিয়ে সেদ্ধ করে পানি ফেলে দিতে হবে। এবার তেল ছাড়া বাকি সব উপকরণ পরিমাণমতো পানি দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে ঘন গোলা বানিয়ে নিতে হবে। এর মধ্যে সেদ্ধ করা লতি ডুবিয়ে গড়িয়ে গরম ডুবো তেলে বাদামি করে ভেজে নিন। গরম-গরম চায়ের সঙ্গে পরিবেশন করুন।

কচুর মুখির ফুলকো লুচি


উপকরণ: সেদ্ধ কচুর মুখি ১ কাপ, ময়দা ২ কাপ, টেলে গুঁড়া করে নেওয়া শুকনা মরিচ ১ টেবিল চামচ, টেলে গুঁড়া করে নেওয়া জিরা ১ টেবিল চামচ, চিনি সিকি চা-চামচ, বেকিং পাউডার ১ চিমটি (ঐচ্ছিক), লবণ স্বাদমতো ও তেল পরিমাণমতো।


প্রণালি: ময়দা, লবণ, চিনি, বেকিং পাউডার ও তেল দিয়ে ময়ান করে নিন। ঝুরঝুরে করে নিতে হবে লুচির ময়ানের মতো। তারপর একটু পানি দিয়ে মেখে লুচির খামির বানিয়ে নিতে হবে। এটা একটা ভেজা কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখতে হবে আধা ঘণ্টা। সেদ্ধ কচুর মুখি, লবণ, টালা শুকনা মরিচগুঁড়া ও টালা জিরাগুঁড়া দিয়ে ভালোভাবে মেখে ভর্তার মতো বানিয়ে নিতে হবে। এরপর ওই খামির থেকে লেচি কেটে নিন। এর মধ্যে কচুর মুখির পুর ভরে নিন। গোল লুচি বানিয়ে নিতে হবে। গরম ডুবো তেলে ভেজে গরম-গরম পরিবেশন করুন।

কলার থোড়ের পাকোড়া


উপকরণ: কলার থোড় মিহি কুচি করে কাটা ২ কাপ, হলুদগুঁড়া সিকি চা-চামচ, আদাবাটা-রসুনবাটা সিকি চা-চামচ, মরিচগুঁড়া সিকি চা-চামচ, পেঁয়াজকুচি ১ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচের কুচি ২ চা-চামচ, বেসন ১ কাপ, লবণ স্বাদমতো ও তেল পরিমাণমতো।


প্রণালি: থোড় কেটে হলুদ পানিতে ভিজিয়ে রেখে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে। এই থোড় লবণ দিয়ে গরম পানিতে ভাপ দিয়ে নিতে হবে। হাত দিয়ে চেপে চেপে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে। পানি ঝরানো থোড়ের সঙ্গে পেঁয়াজকুচি, কাঁচা মরিচের কুচি, মরিচগুঁড়া, আদা-রসুনবাটা, লবণ ও পরিমাণমতো বেসন দিয়ে ভালোভাবে মেখে নিন। মাখানোর সময় দরকার হলে একটু পানি দিতে পারেন। এর থেকে খানিকটা করে নিয়ে পাকোড়ার মতো আকারে গরম ডুবো তেলে ভেজে গরম-গরম পরিবেশন করুন।

শর্ষে-পোস্ত দিয়ে শাপলার পাতুরি


উপকরণ: লম্বা করে কাটা শাপলা ৩ কাপ, পেঁয়াজকুচি ১ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ ফালি করে কাটা ৩-৪টি, পোস্তবাটা আধা চা-চামচ, শর্ষেবাটা আধা টেবিল চামচ (২টি কাঁচা মরিচ দিয়ে বেটে নেওয়া), হলুদগুঁড়া সিকি চা-চামচ, কালিজিরা সিকি চা-চামচ, আস্ত শুকনা মরিচ ২টি, লবণ স্বাদমতো ও শর্ষের তেল পরিমাণমতো।


প্রণালি: শাপলা একটু লবণ দিয়ে গরম ফুটন্ত পানিতে হালকা ভেপে নিতে হবে। গরম তেলে শুকনা মরিচ, কালিজিরা ফোঁড়ন দিন। পেঁয়াজকুচি দিয়ে ভেজে কাঁচা মরিচ, শর্ষেবাটা, পোস্তবাটা, হলুদ, লবণ দিয়ে নেড়ে দিন। একটু পানি দিয়ে ভালোভাবে কষিয়ে নিতে হবে। এতে ভাপ দেওয়া শাপলা দিয়ে দিন। রান্না করে নামিয়ে গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন। অথবা কষানো মসলাতে ভাপ দেওয়া শাপলা দিয়ে নেড়ে দিন। একটু কষিয়ে আগুনের আঁচে কলাপাতা পুড়িয়ে কষানো শাপলা দিয়ে মুড়িয়ে নিন। কম আঁচে শুকনা তাওয়ার ওপর কিছুক্ষণ রান্না করে নিন। নামিয়ে গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন। 

 
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ