বেগম জিয়ার ৭৬তম জন্মদিবসে ক্যালিফোর্ণিয়া বিএনপি'র দোয়া অনুষ্ঠিত

August 19, 2020, 11:17 AM, Hits: 489

বেগম জিয়ার ৭৬তম জন্মদিবসে ক্যালিফোর্ণিয়া বিএনপি'র দোয়া অনুষ্ঠিত

হ-বাংলা নিউজ, হলিউড থেকে : বাংলাদেশের তিনবারের সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী,  বিএনপি'র চেয়ারপারসন, আপোষহীন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া'র ৭৬ তম জন্মদিবসে ক্যালিফোর্ণিয়া বিএনপি'র উদ্যোগে এক ভার্চ্যুয়াল দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ১৬ আগষ্ট ২০২০ রবিবার যুক্তরাষ্ট্রের লস এঞ্জেলেস সময় সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত এ ভার্চ্যুয়াল দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসাবে সরাসরি ঢাকা থেকে সংযুক্ত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব জননেতা রুহুল কবীর রিজভী আহমেদ এবং বিশেষ অতিথি হিসাবে সংযুক্ত ছিলেন বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সহ-সম্পাদক আনোয়ার হোসেন খোকন।

বেগম খালেদা জিয়ার জন্মদিনের এই ভার্চ্যুয়াল অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করেছেন ক্যালিফোর্ণিয়া বিএনপির সভাপতি জনাব বদরুল আলম চৌধুরী শিপলু এবং সঞ্চালনা করেছেন ক্যালিফোর্ণিয়া বিএনপির সাধারন সম্পাদক জনাব এম ওয়াহিদ রহমান। দেশনেত্রীর দীর্ঘায়ু ও সুস্হতা কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মুনাজাত পরিচালনা করেন ক্যালিফোর্ণিয়া বিএনপির সহসভাপতি আফজাল হোসেন শিকদার এবং পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেছেন ক্যালিফোর্ণিয়া বিএনপির যুগ্ম-সম্পাদক লায়েক আহমেদ। এছাড়াও সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রেখেছেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সহ-সভাপতি জনাব নজরুল ইসলাম চৌধুরী কাঞ্চন, ক্যালিফোর্ণিয়া বিএনপির সাবেক সভাপতি জনাব আবদুল বাছিত, সিনিয়র সহ-সভাপতি মাহবুবুর রহমান শাহীন, সহ-সভাপতি অধ্যাপক শাহাদাত হোসেন শাহীন, মহিলা সম্পাদিকা এ্যাড. শামসুন খান লাকী ও সাংগঠনিক সম্পাদক মারুফ খান।

আলোচনা পর্বে বিএনপি নেতৃবৃন্দ বলেন, বর্তমানে দেশের স্বাধীনতা যে কোনো সময়ের চেয়ে বেশি হুমকির মুখে। আ.লীগ সরকারের স্বেচ্ছাচারী কাজে কেউ যাতে জবাবদিহিতা না চায় সেজন্যই তারা গণতন্ত্রকে গোরস্থানে পাঠিয়েছে। বেপরোয়া সরকার জনগণের কোনো দাবিকেই আমলে না নিয়ে জনগণকে বন্দি করে রাখতেই অগণতান্ত্রিক দুঃশাসন অব্যাহত রেখেছে। খালেদা জিয়ার কথার সঙ্গে কাজের মিল রয়েছে। যেটা অঙ্গীকার করেন অঙ্গীকার থেকে বিচ্যুত হন না। এই জন্যেই খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে যত রাগ ঈর্ষায় যে মামলার সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই কোনো সাক্ষী নেই সেই মামলায় সাজা দিয়ে তাকে কারাগারে রাখা হয়েছিল।

উল্লেখ্য যে, ১৯৪৫ সালের এই দিনে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। জন্মদিনের এই লগ্নে বিএনপি প্রধান অসুস্থ অবস্হায় গুলশানের বাসায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গত মার্চে সরকারের নির্বাহী আদেশে ৬ মাসের জন্য মুক্তি পাওয়ার আগে প্রায় ২৫ মাস কারাগারে ছিলেন তিনি। খালেদা জিয়ার পৈতৃক বাড়ি ফেনী জেলার ফুলগাজী উপজেলার শ্রীপুরে। তার বাবা এস্কান্দার মজুমদার ছিলেন চাকরিজীবী। মাতা তৈয়বা মজুমদার ছিলেন দিনাজপুরের চন্দন বাড়ির মেয়ে। পাঁচ ভাইবোনের মধ্যে বেগম খালেদা জিয়া তৃতীয়। ১৯৬০ সালের আগস্টে বগুড়ার ক্যান্টনমেন্টে কর্মরত সেনাকর্মকর্তা জিয়াউর রহমানের সাথে তিনি বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন। বেগম জিয়ার দুই সন্তানের মধ্যে বড় ছেলে তারেক রহমান বর্তমানে লন্ডনে রয়েছেন এবং ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকো ইন্তেকাল করেছেন। তারেক রহমানের ঘরে তার এক নাতনী জাইমা ও আরাফাত রহমানের ঘরে জাফিয়া ও জাহিয়া নামে দুই নাতনী রয়েছে।

১৯৮১ সালের ৩০ মে তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে দেশী-বিদেশী চক্রান্তে বিপথগামী সৈন্যদের হাতে নির্মমভাবে নিহত হন। এর পরপরই জিয়াউর রহমানের গড়া বিএনপির মাধ্যমে দেশের রাজনীতিতে আগমন ঘটে বেগম খালেদা জিয়ার। দলের নেতাকর্মীদের দাবির মুখে ১৯৮২ সালের ২ জানুয়ারি তিনি বিএনপির প্রাথমিক সদস্য হন। ’৮৩ সালের মার্চে দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান এবং ’৮৪ সালের ১২ জানুয়ারি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে দলের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এরপর ১৯৮৪-এর ১ মে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দলের চেয়ারপারসন নির্বাচিত হন।

স্বৈরাচার এরশাদবিরোধী দীর্ঘ আপসহীন আন্দোলনের পর ১৯৯১ সালে তিনি বাংলাদেশের প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন। এ পর্যন্ত তিন দফায় প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন খালেদা জিয়া। ১৯৯৩ সালে তিনি সার্কের প্রথম মহিলা চেয়ারপারসন হন। ২০০১ সালের ১ অক্টোবরের নির্বাচনে বেগম জিয়ার নেতৃত্বাধীন চার দলীয় জোট নির্বাচনে জয়লাভের পর তৃতীয়বারের মতো সরকার গঠন করে। ওয়ান-ইলেভেনের পর মঈন-ফখরুদ্দীন সরকার ২০০৭ সালের ৩ সেপ্টেম্বর তাকে কারাবন্দী করে। ২০০৮ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কারাভোগ করেন তিনি। সেবার কারাগারে প্রথম জন্মদিন কেটেছে তার। কারাগারে থাকা অবস্থায় তার অনড় মনোভাবের কারণে ‘মাইনাস টু ফর্মুলা’ থেকে সরে আসতে বাধ্য হয় ওই সরকার। পরে তারা নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচন দেয়। ২০০৮ সালের ডিসেম্বরে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি কাঙ্খিত  ফল না পেয়ে সরকার গঠনে ব্যর্থ হয়। সেই থেকে সরকারি দলের দমন-পীড়ন ও মামলা-হামলার বৃত্তে বন্দী দেশের অন্যতম বৃহৎ এই রাজনৈতিক দল। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির একতরফা নির্বাচন বর্জন করে দলটি। একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় সাজা হয় বেগম জিয়ার। করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে ছয় মাসের জন্য সাজা স্থগিত করে গত ২৫ মার্চ খালেদা জিয়াকে শর্তসাপেক্ষে মুক্তি দেয় সরকার।

ক্যালিফোর্ণিয়া বিএনপি আয়োজিত এ ভার্চু্য়্যাল স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিলে অংশ নিয়ে সংযুক্ত ছিলেনঃ বদরুল এ চৌধুরী শিপলু, এম ওয়াহিদ রহমান, নজরুল ইসলাম চৌধুরী কাঞ্চন, মোঃ আঃ বাছিত, সামসুজ্জোহা বাবলু, মাহবুবুর রহমান শাহীন, মুর্শেদুল ইসলাম, নিয়াজ মোহাইমেন, সাইফুল আনসারী চপল, অপু সাজ্জাদ, আফজাল শিকদার, সালাম দাড়িয়া, শওকত হোসেন আনজিন, সাঈদ আবেদ নিপু, জুনেল আহমেদ, আহসান হাবীব রুমি, হাসনাত খন্দকার, লিটু আহমেদ, মিকায়েল খান রাসেল, শাহাদাত হোসেন শাহীন, আশরাফুল আলম হেলাল, জহিরুল কবির হেলাল, মার্শাল হক, নুরুল ইসলাম, এলেন খান, মিজানুর রহমান, আবদুর রহিম, ফারুক হাওলাদার, সৈয়দ নাসিরউদ্দিন জেবুল, মোয়াজ্জেম হোসেন রাসেল, বদরুল আলম মাসুদ, দেলোয়ার জাহান চৌধুরী, লায়েক আহমেদ, রফিকুজ্জামান জুয়েল, ইলিয়াছ মিয়া, শাহতাব কবীর ভূঁইয়া শান্ত, শাহীন হক, আলমগীর হোসেন, রনি জামান, এ্যাডঃ নুরুল হক, সজয় আহমেদ মনির, মারুফ খান, লোকমান হোসাইন, কামাল হোসেন তরুন, মোশারফ হোসেন ইমন, রেজাউল হায়দার চৌধুরী বাবু, কামরুল আলম চৌধুরী, খোরশেদ আলম রতন, সামিদুল ইসলাম, সাঈদ খান, রেজাউল করিম জামিল, হাফেজ মোঃ বেলাল, শাহেদ আহমেদ, কহিনুর রহমান, ইফতেখার হোসেন ফাহিম, মিজানুর রহমান জমশেদ, কবির আহমেদ, হোসেন আহমেদ, এমাজউদ্দিন চৌধুরী দুলাল, আবদুল মোতালেব, আব্দুল হাকিম, খসরু রানা, আসাদুজ্জামান মুক্তা, নাজিম খান টিটু, সুমেন আহমেদ, আবদুল মান্নান, ফয়সাল হোসেন সিদ্দিকী, ফয়সাল সালাম, আবদুল মুনিম, আবুল খায়ের, শামসুল আলম, নাহিদুল ইসলাম, আবুল কায়সার, এ্যাডঃ শামসুন খান লাকী, ফরিদা বেগম, নয়ন বড়ুয়া, এ কে এম আসিফ, শহিদুল ইসলাম পলাশ, খায়রুল ইসলাম, খোন্দকার আলম, আবুল ইব্রাহিম, মানিক চৌধুরী, মিশর নুন, ফারুক সরকার, গিয়াস উদ্দিন, আবদুল আহাদ, এহসান আহমেদ, আবুল বাশার, দেলোয়ার আহমেদ, রফিকুল ইসলাম রিতি, নজরুল ইসলাম, আবুল হাসনাত চৌধুরী মন্টু, আবদুল হাসিব, রফিকুল ইসলাম চৌধুরী, হাসানুজ্জামান মিজান, মোঃ হাবিব, মাইনুল হক, মশিউর রহমান ও জিয়া ফজল সিদ্দিকী প্রমুখ। 

 
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ