প্যারাসিটামল খেলে কেন জ্বর কমে

August 22, 2020, 1:27 AM, Hits: 201

প্যারাসিটামল খেলে কেন জ্বর কমে

হ-বাংলা নিউজ : আমারা জ্বরে আক্ররান্ত হলে,  শরীরের কোথাও আঘাত লাগে, কখনোবা আমাদের শরীর রোগজীবাণু দ্বারা আক্রান্ত হলে শরীরের প্রতিরক্ষাব্যবস্থা কিছু রাসায়নিক পদার্থ নিঃসরণ করে। এই রাসায়নিক পদার্থগুলোকে বলা হয় অটকয়েডস (Autacoids)। অটকয়েডস নিঃসরণ হলে কখনো আঘাতের স্থানে ব্যথা অনুভূত হয়, কখনো ফুলে যায় আবার কখনো শরীরের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পায়, যাকে আমরা আমরা জ্বর বলি।

আমাদের মস্তিষ্কে হাইপোথ্যালামাস নামে একটি অংশ আছে। এই অংশের কাজ হলো শরীরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করা। রোগজীবাণুর বিরুদ্ধে কাজ করার জন্য আমাদের শরীর ডাইনোপ্রোস্টন নামে একটি অটকয়েড নিঃসরণ করে। হাইপোথ্যালামাসে যখন ডাইনোপ্রোস্টনের পরিমাণ বেড়ে যায়, তখন শরীরের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পায়।

যখন আমাদের শরীরে কোনো ক্ষতিকর জীবাণু প্রবেশ করে। তখন শরীরের প্রতিরক্ষাব্যবস্থা যত দ্রুত সম্ভব এই জীবাণুগুলোকে ধ্বংস করার ব্যবস্থা শুরু করে দেয়। আর এ জন্য সে ডাইনোপ্রোস্টন তৈরি করতে শুরু করবে। আর এর ফলে শরীরের তাপমাত্রাও যায় স্বাভাবিকের চেয়ে বেড়ে, যাকে সাধারণভাবে জ্বর বলা হয়। এখন জ্বর কমাতে হলে কোনো একটা উপায়ে এই ডাইনোপ্রোস্টন তৈরি বন্ধ করতে হবে। এই ডাইনোপ্রোস্টন আবার তৈরি হয় COX-2 এবং সচঊেঝ-১ নামে দুটি এনজাইমের দ্বারা। এই দুটি এনজাইম তৈরি বন্ধ করতে পারি, তাহলে ডাইনোপ্রোস্টন তৈরিও বন্ধ হয়ে যাবে। আর শরীরের তাপমাত্রাও স্বাভাবিক হয়ে যাবে। আমরা যখন প্যারাসিটামল বা অ্যাসপিরিন খাই, সেটি আমাদের রক্তের সঙ্গে মিশে এই এনজাইম দুটি তৈরিতে বাধা সৃষ্টি করে। এই এনজাইম দুটি ছাড়া  ডাইনোপ্রোস্টন তৈরি হতে পারে না। তাই আমরা যখনই প্যারাসিটামল (আরেক নাম অ্যাসিটামিনোফেন) খাই, তখন শরীরের তাপমাত্রা কমতে থাকে। 

 
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ