প্রবাসী লেখকদের কলাম

Displaying 1-20 of 497 results.
হে আল্লাহ এ আরজি টুকু রাখিও

হে আল্লাহ এ আরজি টুকু রাখিও

হে আল্লাহ এ আরজি টুকু রাখিও


জাহাঙ্গীর বাবু


মাহফিল গুলোতে গীবত

প্যারোডি অনন্য সংযোজন,

সরে যাচ্ছি কি যোজন যোজন!

ইংলিশ,বাংলিশ,হিন্দী,উর্দু ছাড়া

গরম হয়না বয়ান,মৃত্যুর আগে

কি হারাবো ঈমান!

মায়ের ভাষা বাংলা আমার,

আরবী ভাষায় কোরান,

বিশ্বের ভাষায় ইংরেজী এগিয়ে,

মিশ্র বয়ান আমার সামনে!

ওরা কতিপয় মিথ্যা,বানোয়াট গল্প জুড়ে

বুজুর্গী ঝাড়ে,নিজেরে জাহির করে

মুজিব বর্ষ গনণা ইতিহাসের বদলা

মুজিব বর্ষ গনণা ইতিহাসের বদলা

মুজিব বর্ষ গনণা ইতিহাসের বদলা


জাহাঙ্গীর বাবু



ইতিহাস কাউকে ক্ষমা করেনা

তাই কবি আজও

ওপারে থেকেও এ পারে

ওরা নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিলো

সময় লেগেছে,ফিরে এসেছে

তর্জনীর ইশারা বজ্র কন্ঠের কালজয়ী কবিতা

কন্ডেম সেলের প্রকোষ্ঠ 

মুক্তির  পিপাসায় তৃষ্ণার্ত করে তুলেছিল

এই দেশের মাটিও মানুষদের

কবি তার কবিতায় বলেছিলেন,

'এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম

......

হে মহাকাল

হে মহাকাল

হে মহাকাল

ফজলুল কাদির


আমি ছিলাম ধ্যানে, বীণা হাতে একান্তে

কা নজংঘা বুকে ধারণ করে তার

সর্বোচ্চ শেখরে বসে মগ্ন সাধনে সুরের দিব্যজ্ঞান

হঠাৎ একটা করুন আর্তনাদে কে যেন বলে যায়

“হে বন্ধু বিদায়”! পেছন ফিরে দেখি

মহাকাল তার নিষ্ঠুর হাতে নিজ বুকে দিয়েছে ঠুকে

আরও একটি কঠিন পেরেক কেড়ে নিয়ে গেল

আরও একটি বছর চিরতরে

রক্তাক্ত ক্ষত বিক্ষত হৃদয়ের জমিন

অসহায় নির্বোধ চিত্তে তাকিয়ে থাকি অর্থহীন দীর্ঘ নিঃশ্বাসে

......

কষ্ট মুখে একটু হাসি ফোটাই

কষ্ট মুখে একটু হাসি ফোটাই

কষ্ট মুখে একটু হাসি ফোটাই

জাহাঙ্গীর বাবু 



শীত এসেছে ঝেঁকে

যাচ্ছে শরীর বেঁকে

শীতের কাপড় নেই যার

শীত শত্রু যে তার।

ফুটপাতে কাতরায় শীতে

খোলা আকাশের নীচে থাকে,

ত্রাণের কম্বল যদি জোটে

ফাটা ঠোঁটে হাসি ফোটে।

ঝড়,বৃষ্টি,বন্যা,ক্ষরা,রোদের তাপ

শীত কাঁপায় বাপরে বাপ,

এসো শীতার্তের পাশে দাঁড়াই

কষ্ট মুখে একটু হাসি ফোঁটাই।

ইসলাম বলে, 

বিজয়ের আনন্দ হোক আমার ভাষায়

বিজয়ের আনন্দ হোক আমার ভাষায়

বিজয়ের আনন্দ হোক আমার ভাষায়

জাহাঙ্গীর বাবু


দোহাই অপ সংস্কৃতির অনুকরনে

ভিন্ন সংস্কৃতি আমদানী করে

ইংরেজী,হিন্দী গানের তালে 

বিজয় উল্লাস করবেন না। 

অন্তত নিজেদের দিবস গুলিতে

ভীন সংস্কৃতি মুক্ত থাক আমার মাতৃভূমি স্বদেশ।

লক্ষ লক্ষ শহীদের রক্তের বলিদানে

হাজারো মা বোনের সম্ভ্রমের বিনিমিয়ে

বিশ্ব মাচিত্রে নিজস্ব সীমানা অর্জিত হয়েছিল সে দিন, 

উন্নিশো একাত্তর ষোল ডিসেম্বর।

সে......

খুঁজি নিজেরে

খুঁজি নিজেরে

খুঁজি নিজেরে

জাহাঙ্গীর বাবু


মরা বিবেকের ময়না তদন্তের 

রিপোর্টে, ঘিলুর দলা পুরাই ফাঁপা।

জীবিত মনুষত্বের ইসিজি রিপোর্টে

সরু রেখা মাত্র।মানুষের অবয়বে হাঁটছি

অনন্তকাল ধরে।নষ্ট মনে শিষ্ঠাচার,

নিয়ম নীতি আশা করা বাহুল্যপূর্ণ! 

নামের শিরোনামে ধর্ম সুসজ্জিত

শিক্ষার প্রত্যায়ন পত্রে দুর্নীতির সুত্র।

চিৎকার করে বলি আমি মানুষ!

হা হা হা আমি মানুষ।

কি নির্লজ্জ অভিব্যাক্তি,

পোড়া মবিল নাকি কলংকের কালি!

পোড়া মবিল নাকি কলংকের কালি!

পোড়া মবিল নাকি কলংকের কালি!

জাহাঙ্গীর বাবু


জাতির গালে কালি মাখে

ট্রান্সপোর্ট সংশ্লিষ্ট খুনীরা...... 

জাতির চলাচল ওদের হাতে,

জিম্মি জনজীবন। 

যে মানূষটা সহধর্মিণী হারিয়ে 

সেই যে রাস্তায় নামলেন আর ফেরেননি,

তাকে নিয়ে বিদ্রুপ তাচ্ছিল্য,

এই অপমান ইলিয়াস কাঞ্চন সাহেবের নয়

এই অপমান, লজ্জা আমার।

ওই খুনীরা চায় খুনের লাইসেন্স!

ইলিয়াস কাঞ্চনের স্বপ্ন নিরাপদ সড়ক, 

রাস্তা আর......

সে একদিন আর এলো না

সে একদিন আর এলো না

সে একদিন আর এলো না

জাহাঙ্গীর বাবু


মনে রাখিস,একদিন আমিও..

সে একদিন আর এলো না,

অপেক্ষায় কাটলো লক্ষ, কোটি বছর।

ভালোবাসার অপেক্ষায়

কাটলো,বিশুদ্ধ ভালোবাসা।

নিশ্বাসের বিষে কালো অন্ধকার!

বিশ্বাসের অপেক্ষায় আজো।

শুদ্ধতার তালশে অশুদ্ধের তলানিতে

প্রতি কদমে,এরা,ওরা,আমি,আমরা।

নিজের সাথে নিজের বিশ্বাস ঘাতকতা

স্বপ্নের মাঝে অশুদ্ধ, যত নীল নকশা!

মানুষ দাবী করি নিজেরে!

আসলেই......

চাঁদের হাটের ছেলে

চাঁদের হাটের ছেলে

চাঁদের হাটের ছেলে

সুফিয়ান আহমদ চৌধুরী


চাঁদের হাটের চাঁদমণিরা

কেমন আছে তারা,

খেলাধূলা গান বাজনায়

দিন কাটাতো যারা।

ছড়া পাঠের আসর নিয়ে

হারিয়ে যাওয়া স্মৃতি,

ভালোবাসার এ সব দিনে

ছিলো যে স¤প্রীতি।

ঈদের দিনও বাদ যেত না

মিলন মেলা থেকে,

আসতো নতুন তাদের চোখে

স্বপ্ন দিতাম এঁকে।

জুয়েল-ভজন-শাহীন, সেগুল

শামীম-পুলিন রায়,

ধোপাদীঘির পূর্ব......

আর খাবোনা পেঁয়াজ

আর খাবোনা পেঁয়াজ

আর খাবোনা পেঁয়াজ 

জাহাঙ্গীর বাবু


যতই বাড়ে বাড়ুক পেঁয়াজের দাম

করি পণ আর খাবোনা পেঁয়াজ,

সিন্ডিকেটের কারসাজিতে বাড়ে দাম,

থাক বা না থাক পেঁয়াজে ঝাঁজ!

ছেড়েছি অভ্যাস কাঁচা পেঁয়াজ খাওয়া

বাড়া, যত পারিস দাম বাড়া।

নিজের দেশের পেঁয়াজ ছোট

একশন বিদেশী পেঁয়াজের চেয়ে বেশি

পড়ুক আল্লাহর গজব,যারা করে কারসাজি।

ধীরে ধীরে দিলাম ছেড়ে পেঁয়াজের নেশা

দেশের পেঁয়াজ শুঁকে শুঁকে করি তামাসা!

......

পর্যবেক্ষক

পর্যবেক্ষক

পর্যবেক্ষক

ফজলুল কাদির পান্না

হত্যার মহা উৎসবে আমি এক পর্যবেক্ষক

দাঁড়িয়ে আছি ভাস্কর্য্য মূর্তির মত অবিচল

পাথরের মত সময় কিংবা সময়ের মত পাথর

অস্তিত্ব জানান দেয় নির্লিপ্ত বাসনা

সে এক অজানা অধ্যায়।

যাই হোক আমি এক পর্যবেক্ষক

সেটা খাঁটি সত্যি এবং সত্যি সত্যি

সারাদেশে চলছে হত্যার মহা উৎসব

দুর্বার গতিতে জ্যামিতিক হারে

আইন চলে গেছে দানবের হাতে অবলীলায়

আইন শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী এখন নিঃস্ব

জাহাঙ্গীর বাবু'র কয়েকটি সমসাময়িক  কবিতা

জাহাঙ্গীর বাবু'র কয়েকটি সমসাময়িক কবিতা

জাহাঙ্গীর বাবু'র কয়েকটি সমসাময়িক  কবিতা 


খামোশ, চুপ,ওদের আছে নিউক্লিয়ার!

জাহাঙ্গীর বাবু

সীমান্ত ওদের,আমাদের পড়শীর।

আমাদের জন্য কাঁটা তার,

ওদের জন্য পড়শী বাড়ি,পরকীয়ার ঘর।

শুধুই শুধুই করি মাতম,আহাজারি।

ওরা পারে,ওরা মারে,আমরা মরি।

আমাদের সীমান্ত আমরা ভুলে যাই

গরু মরে,ব্যাপারী,চোরাকারবারী মরে,

সীমান্তবাসী মরে,মরে ফেলানীরা

আমরা পড়শী ছাড়া চলতে পারিনা।

দিতে হয় যা চায়,আনতে......

ইলিশ-পেয়াজ কি ফাঁকা আওয়াজ

ইলিশ-পেয়াজ কি ফাঁকা আওয়াজ

ইলিশ-পেয়াজ কি ফাঁকা আওয়াজ

জাহাঙ্গীর বাবু


ইলিশ পেয়ে দাদা দিদিরা খাবে মজা করে,

পেঁয়াজ ছাড়া তরকারী কি আমাদের খেতে হবে ?

এ কেমন প্রতিদান দিলো দাদা,দিদিরা,

মেজবানীতে সেরা আজো আমরা বাংলাদেশীরা।

খেয়ে এসেছেন নাকি যেয়ে খাবেন দাদা দিদি বলেন,

এইবার না খেয়ে গেলেন,আগামীতে খেয়ে আসবেন।

স্বাবলম্বী উন্নয়ণে সেরা বিশ্ব জুড়ে আজো

বিশ্বাস না হলে টকশো,বুদ্ধিজীবিদের কথা শুনে দেখ।

কাঁটাতারে ঠুস ঠাস মরতে ভালোবাসি,

কিতা কইতাম শরম করের (সিলেটের আঞ্চলিক)

কিতা কইতাম শরম করের (সিলেটের আঞ্চলিক)

কিতা কইতাম শরম করের (সিলেটের আঞ্চলিক)

নাজমুল ইসলাম মকবুল 


কিতা কইতাম শরম করের

কই গিয়া পড়তাম মরি

যেবায়উ যাই অবায় দেকি ঘুষর অউ ছড়াছড়ি।।

গাউ গেরামো বিছার লাগলে

বিছার নাই কয় আধপাগলে

মড়লে কইন বিছার পাইতে টেখা দেও তাড়াতাড়ি।। 

অফিস আদালতো আইলে

ঘুষ দিতে অয় ভাইলে ভাইলে 

টেখা ছাড়া তোমার ফাইলটা তলেদি থাকবো পড়ি।।

রিজেষ্টারী করতে জাগা

রাখা লাগে ঘুষর ভাগা

চাকরী বাকরী অয়নাবুলে......

ব্রিটিশ এমপি বোকার মতো!

ব্রিটিশ এমপি বোকার মতো!

ব্রিটিশ এমপি বোকার মতো!

নাজমুল ইসলাম মকবুল 


ব্রিটিশ এমপি 

সুরমা পারে বোকার মতো

হাতে তোলেন ময়লা!

আমি বলি 

এমন করলে ফিগার আমার

হয়ে যাবে কয়লা।

পিএসদেরকে বলি হেসে

নতুন ঝাড়– আনো

ঝাড়–র হাতায় পারফিউম লাগাও

টিস্যু কয়টা আনো।

ক্লিন রাস্তায় টিস্যু ফেলে

ঝাড়– দিয়ে নাড়াই

ফটো তুলতে মিলেমিশে

সারিবেঁধে দাড়াই।

টিভি পেপার সোসাল মিডিয়ায়

......

পাপ গাভীন

পাপ গাভীন

পাপ গাভীন

জাহাঙ্গীর বাবু

যতই বলে চিনিনা,জানিনা,পঁচারা 

আমাদের কেউনা,উচ্ছিষ্ট ভুগী আমরানা,

সেল্ফি হলো কাল,ছবি মিথ্যা বলেনা

হয়ে যাচ্ছে প্রমাণ।

দোষ চালাচালি,দলাদলি,ঠেলাঠেলি,

নষ্টা পতিতার ঝগড়া কাহিনী,

হঠাৎ গরম নানা বাহিনী,কখন হয়,

যখন বাটোয়ারায় টানাটানি।

উদোর পিন্ডি ভুদোর ঘাড়ে,

ও ঘরে কে রে, আমি কলা খাই না, 

আমি দুধে ধোয়া তুলসী, দোষী তাহলে

ভিডিও ফুটেজ,ছবি আর সেল্ফি!

ঘুমিয়ে......

সাবধান,কিন্তু, নেক্সট হোয়াট?

সাবধান,কিন্তু, নেক্সট হোয়াট?

সাবধান,কিন্তু, নেক্সট হোয়াট? 

জাহাঙ্গীর বাবু


সাবধান,

দুই নাম্বার নেতা,মন্ত্রী,আমলারা আসছে নাকি থেরাপী?

কিন্তু,দুই নম্বরীতে সয়লাব বিভাগ,উইং প্রত্যেকটি"

শাখা,প্রশাখা,শহর,বন্দর,গ্রাম,গঞ্জ... 

নেতা,আমলারা নিজেরা বাঁচতেই নস্যাৎ করে দেয়  অভিযান প্রতিটি!

সব পদক্ষেপ হয়ে যায় আই ওয়াশ!

কালে কালে যুগে যুগে দেখা গেছে,

প্রতিটি অভিযানের শুরু আছে শেষ নাই,

কোন দিন,কোন সময় এই দিকে, 

সোচ্চার হলেই ক্ষমতা হয়ে......

ব্রিটিশেরা এম.পি হয়েও

ব্রিটিশেরা এম.পি হয়েও

ব্রিটিশেরা এম.পি হয়েও

নাজমুল ইসলাম মকবুল 

ব্রিটিশেরা এম.পি হয়েও

সুরমা পারে সাফ করে

আমার দেশের লুটেরারা

লুট করে ভাই ট্রাক ভরে!

পদের ভারে এসির ভেতর

ফুর্তি করে প্রাণ ভরে 

দেখা করতে কি যে কষ্ট

তাও আবার দালাল ধরে। 

রাস্তা ঘাটে দখলবাজি

ময়লা থাকুক চিন্তা নাই

এসি গাড়ির ভেতর থেকে

এসব দেখার সময় নাই।

কোথা থেকে কত টাকা

আসছে ভাগে হিসাব চাই

পাবলিক মেরে......

দখলবাজরা বেঁচে থাক, আমজনতা নিপাত যাক!

দখলবাজরা বেঁচে থাক, আমজনতা নিপাত যাক!

দখলবাজরা বেঁচে থাক, আমজনতা নিপাত যাক!

জাহাঙ্গীর বাবু


কবরের জায়গা কিন্তু সাড়ে তিন হাত।

সে জায়গা সরকারের নয়,জনগনের নয়,

পড়শী আত্বীয়ের নয়,দখল বাজি চলবেনা!

দখলবাজ গং,আজাব,আগুনকে ভয় পায়না।

ওরা দখল রাজ,ওরা মরবেনা।

ওরা ক্ষমতার সাথে মুখোশ বদলায়।

ওরা মায়ের বুকে ছুরি চালায়

বাবার মাথায় করে আঘাত

ওরা দখলবাজ।

দেশমাতা ওদের কাছে ধর্ষিত বারংবার।

ওরা দখলবাজ,দখল করে অন্যের ভূমি,

অন্যের......

রণক্লান্ত

রণক্লান্ত

রণক্লান্ত

জাহাঙ্গীর বাবু


স্বদেশে বিদ্রোহী নই তবু আমি রণক্লান্ত 

স্বদেশী শ্রমিক দুই যুগ প্রবাসী ছিলাম

মাতৃভূমের শ্রম বাজারে নিঃস্ব সর্বশান্ত।

আসানসোলের রুটির দোকানে নয়,

মরু প্রান্তরে কেটেছিল সূর্যের উদয় থেকে অস্ত।

ভীনদেশের ডামাডোলে কেটেছে দিন,রাত সমস্ত।

জন্মভূমে বাঁচিতে চাহিয়া কবিতার চরণ নির্লজ্জ

হে বিদ্রোহী কবি সম্রাট,আমি আজ স্বদেশে বিবস্ত্র!

ওপারে ভালো থেকো দেখা হবে হয়তো

শিষ্যরে......